কাঙ্ক্ষিত সেবা পাচ্ছে না জনগণ” “ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল সংকট”

সৌরভ মাহমুদ হারুন,ব্রাক্ষণপাড়া কুমিল্লা ।।

১৫৭

কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল সংকট চরম আকার ধারণ করেছে। এতে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে স্বাস্থ্যসেবা। আর রোগীরা বঞ্চিত হচ্ছে কাঙ্খিত সেবা থেকে। জানা গেছে, উপজেলার প্রায় আড়াই লাখ লোকের ভরসাস্থল এই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি। ৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ১৯৯৮ সালে তৎকালীন সময়ে প্রয়াত সংসদ সদস্য এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু উদ্বোধন করেন। এতে জনসংখ্যার হারে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি সেবা দিতে ব্যহত হয়। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি চালাতে যে লোকবল প্রয়োজন তা দেয়া হয়নি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে।

নিয়মানুযায়ী ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য সহকারী থাকার কথা ৩০ জন। কিন্তু আছে মাত্র ১২ জন। স্বাস্থ্য পরিদর্শকের ২টি পদই শূন্য অবস্থায় আছে। উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার থাকার কথা ৯ জন। সেখানে বর্তমানে সেবা দিচ্ছেন ৫ জন। নার্স ১৮ জনের বিপরীতে আছে ১১ জন। ডাক্তার ১১ জনের বিপরীতে আছে ১০ জন। তার মধ্যে ৫ জনই (কোভিড-১৯) চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে। ৩য় ও ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারীর সবকটি পদই শূন্য অবস্থায় আছে। এ্যাম্বুলেন্স আছে কিন্তু ড্রাইভার নেই। স্টোর কিপার,ফার্মাসিস্ট, অন্ত: ও বহি:বিভাগে এমএলএসএস ও পরিচ্ছন্নতাকর্মী সংকট। ল্যাবরেটরী টেকনিশিয়ান মাত্র একজন কাজ করছে। এছাড়াও অফিস সহকারী,ক্যাশিয়ার,পরিসংখ্যানবিদ,কম্পিউটার অপারেটর জনবল সংকটে আছে।

এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিন হাজার হাজার লোক চিকিৎসা সেবা নিতে আসে। বেশিরভাগ সময় উপ-সহকারী কমিউনিটি ডাক্তারদের উপর নির্ভর করতে হয়। এক্স-রে ও ইসিজি মেশিন বিকল অবস্থায় পড়ে আছে। ফলে সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রোগীরা। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আবু হাসনাত মোঃ মহিউদ্দিন মুবিন চিকিৎসক ও জনবল সংকটের কথা স্বীকার করে বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে বিষয়গুলো অবহিতকরন করা হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে জনবল সংকট দুর হবে।

সাইফুল ইসলাম সুমন,অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!