কুমিল্লায় স্ত্রীর হাতে স্বামী খুনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার জগতপুর এলাকায় রবিউল হোসেন (৪৫) নামে এক প্রবাসীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (৭ জানুয়ারি) বেলা বারোটার দিকে উপজেলার সদরের জগতপুর গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহতের স্বজনরা জানান, রবিউল প্রায় ১৮ বছর সৌদি আরবে কর্মরত ছিলেন।

কিছু দিন আগে দেশে এসে স্ত্রী মনি আক্তার নাজমা ও তিন সন্তান নিয়ে কুমিল্লা নগরীর রেইসকোর্স এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন নিহত রবিউল ও তার পরিবার।

শনিবার সকালে রবিউলকে নিয়ে সদর হাসপাতালে যায় এবং সেখানে কর্মরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করলে নাজমা এম্বুলেন্সে তার লাশ নিয়ে গ্রামের বাড়ি জগতপুরে রওয়ানা দেয়। পথের মধ্যে নাজমা নেমে যেতে চাইলে এম্বুলেন্স ড্রাইভার দরজা লক করে জগতপুর নিয়ে আসেন। বাড়ির লোকজন রবিউলের মৃত্যুর কারণ জিজ্ঞেস করলে নাজমা ঠিকমতো উত্তর দিতে পারে নি। স্থানীয়রা পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে বুড়িচং থানার পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

এম্বুলেন্স ড্রাইভার বলেন, রবিউলের স্ত্রী রবিউলকে নিয়ে প্রথমে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে যান। সেখানে কর্মরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তারপর তার স্ত্রী লাশ নিয়ে গ্রামের বাড়ি বুড়িচং জগতপুর রওনা দেন। ভরাসার আসার পরে রবিউলের স্ত্রীর কাছে একটি ফোন আসে তখণ সে গাড়ি থেকে নেমে যেতে চায়। কিন্তু আমি গাড়ির দরজা লক করে দিলে সে আর নামতে পারেনি। আমি তাকে সহ জগতপুর নিয়ে আসি।

প্রতিবেশী অবসর প্রাপ্ত সার্জেন্ট ফরিদ উদ্দিন বলেন, মহিলাটা অনেক খারাপ ছিলো। সব সময় তারা ঝগড়া করতো। এটা পরিকল্পিত হত্যা তাতে কোন সন্দেহ নাই।

বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মারুফ রহমান জানান, ঘটনাটি কোতোয়ালি থানা এলাকার। খবর পেয়ে বুড়িচং থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে কুমিল্লা কোতোয়ালিতে পাঠিয়েছে।

কোতোয়ালি থানা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবে। কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহমেদ সানজুর মোর্শেদ জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিয়মিত মামলার জন্য প্রক্রিয়াধীন আছেন।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!