কুমিল্লায় কাভার্ডভ্যান ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

সৌরভ,কুমিল্লা,প্রতিনিধি।।

১৪৯

বুধবার রাত ৮ টায় কুমিল্লা- বুড়িচং -মীরপুর সড়কের খাড়াতাইয়া গাজীপুর এলাকায় ব্রাক্ষণপাড়া গামী একটি মোটর সাইকেল কে কুমিল্লা গামী একটি ফ্রেশ কোম্পানির লড়ি চাপা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এসময় স্থানীয় লোকজন গাড়ি টিকে আটক করে পুলিশ সোর্পদ করে। ঘটনাস্থলে মোটর সাইকেলের দুই আরোহীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। নিহত দুই যুবক ব্রাক্ষণপাড়া উপজেলার নগরপাড় ও টাকুই গ্রামের।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী ছাত্র লীগ নেতা কামরুজ্জামান জানা্য বুধবার রাত ৮টায় কুমিল্লা – ব্রাহ্মণপাড়া – মীরপুর সড়কের বুড়িচং উপজেলার খাড়াতাইয়া গাজীপুর এলাকায় ব্রাক্ষণপাড়া গামী একটি মোটর সাইকেলকে বিপরীত গামী ফ্রেশ কোম্পানি লড়ি (ঢাকা মেট্রো -উ- ১২-০০৪১)প্রথম ধাক্কা মেরে ফেলে দেয় এর পর তাদের চাপা দিয়ে পালিয়ে প্রায় ৫শত মিটার চলে যায়। তখন স্থানীয় লোকজন নিয়ে রাস্তায় লড়িটি চালক হেলপার সহ আটক করে গণধূলা দেয়। এসময় মোটর সাইকেলের আরোহী দুই বন্ধু গটনার স্থলে মর্মান্তিক মৃত্যু বরণ করে। খবর পেয়ে বুড়িচং থানার ওসি তদন্ত মোঃ মাকসুদ আলম সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুর্ঘটনা কবলিত দুটো যান এবং চালক ও হেলপারকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। নিহত যুবকরা হল জেলার ব্রাক্ষণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ ইউনিয়নের এর নগর পাড় গ্রামের মোঃ শাহীন মিয়ার ছেলে সাহেবাবাদ ডিগ্রি কলেজের ইন্টার শাখার ২য় বর্ষের ছাত্র মোঃ নয়ন মিয়া (২২),অপর জন হল একই ইউনিয়ন এর সাহেবাবাদ দক্ষিণ পাড়া (টাকুই) গ্রামের মোঃ লিটন মিয়ার ছেলে মোঃ আরিফুল ইসলাম (১৮)।

আটক চালক হল জেলার দাউদকান্দি উপজেলার পুটিয়ারা বাশরা গ্রামের মৃত মোজাফফর হোসেন এর ছেলে মোশাররফ হোসেন চৌধুরী (৩৯)হেলপার হল একই এলাকার মোঃ পরশ সরকারের ছেলে এম রাজন সরকার (১৯)।

বুড়িচং থানার ওসি মোঃ আলমগীর হোসেন দুর্ঘটনায় নিহত দুই যুবকের মৃত্যুর বিষয় টি নিশিত করেন। লড়ির চালক এবং হেলপার কে পুলিশ উদ্ধার করে থানায় আটক রাখা হয়েছে। নিহতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এব্যপারে বুড়িচং থানায় রাতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সাইফুল ইসলাম সুমন,অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!