কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র দলের সদ্য ঘোষিত আহবায়ক কমিটিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি।।

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র দলের সদ্য ঘোষিত ৩১ সদস্যের মধ্যে ১১ জনই বিবাহিত এবং চাকুরিজীবী। আবারও অনেকেরই ছাত্রত্ব নেই। থাকেন রাজধানী ঢাকায়। আন্দোলন-সংগ্রামসহ দলের কোন কর্মকান্ডেই তাঁদের কখনও দেখা যায়নি। অর্থের বিনিময়ে এমন পকেট কমিটি গঠন করা হয়েছে এমনটি দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দলটির নেতা-কর্মীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের এম এ রাজ্জাক মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র দলের পদ বঞ্চিত নেতা-কর্মীরা এসব অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে কমিটির আহবায়ক পদ প্রত্যাশী ছাত্র দল নেতা রাকিবুল ইসলাম রাব্বি জানান, গত বছরের ২৫ নভেম্বর কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রদলের কমিটির মেয়াদ শেষ হয়। দীর্ঘ প্রায় এক বছর পর কারো সাথে কোন প্রকার যোগাযোগ ছাড়াই কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি’র যুগ্ম সম্পাদক ব্যবসায়ী প্রকৌশলী জাকির হোসেন সরকার ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ নেতাদের সাথে আঁতাত করে বিএনপিকে দুর্বল ও ধ্বংস করার জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে ভুল বুঝিয়ে সিনিয়র এবং ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে গত ১৭ নভেম্বর ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র দলের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন করিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন সদ্য ঘোষিত আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব খন্দকার তসলিম উদ্দিন নিশাতসহ কমিটির ১১ জনই বিবাহিত। এদের মধ্যে কেউ কেউ আবার চাকুরিজীবী। আবার অনেকেরই এখন আর ছাত্রত্ব নেই। দলটির কোন কমিটিতেই বিগত দিন এরা ছিলেন না। ছাত্র দলের গঠনতন্ত্র মোতাবেক জেলা কমিটিতে ২০০৩ সালে এসএসসি পাশ করা ছাত্রদের দিয়ে কমিটি গঠনের নির্দেশনা থাকলেও অদৃশ্য কারণে ২০১০ সালে এসএসসি পাশ জুনিয়র ছাত্রদের দিয়ে আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা ছাত্র দলের সদ্য ঘোষিত আহবায়ক কমিটিকে পকেট কমিটি ঘোষণা দিয়ে কমিটিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়। একই সাথে কমিটি বাতিল এবং মামলা-হামলার শিকার দলটির ত্যাগী নেতাদের দিয়ে নতুন আহবায়ক কমিটি গঠনের জন্য বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং ছাত্র দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদককে অনুরোধ জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে ছাত্রদলের পদপ্রত্যাশী নাহিদুল ইসলাম রুপল, রোকনুজ্জামান রাসেল, আশরাফুল ইসলাম অনিক, সাগির কোরাইশি, আহমেদ হাসান আশরাফি অভিকসহ পদ প্রত্যাশী প্রায় অর্ধ শতাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত গত ১৭ নভেম্বর ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসন শ্যামল স্বাক্ষরিত ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র দলের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। সদ্য ঘোষিত আহবায়ক কমিটির সভাপতি করা হয়েছে মোস্তাফিজুর রহমান রাব্বিকে এবং সদস্য সচিব করা হয়েছে খন্দকার তসলিম উদ্দিন নিশাতকে।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!