গুপ্তধন তুলে দেয়ার কথা বলে প্রতারণা, রাজাপুরে দুই যুবক গ্রেপ্তার

কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি।।

১৯৬

ঝালকাঠির রাজাপুরে গুপ্তধন তুলে দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেয়া দুই প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এরা হলো- বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলার খাউলিয়া এলাকার মো. দুলাল খানের ছেলে মো. আরিফ খান জয় (২৩) ও লক্ষ্মীপুর জেলার কমল নগর উপজেলার চর জাঙ্গালিয়া এলাকার মো. আজাদের ছেলে মো. তারেক (২৩)।মঙ্গলবার রাতে রাজাপুর উপজেলার গালুয়া দুর্গাপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার গালুয়া দুর্গাপুর এলাকার মো. সাইদুর রহমান আজাদের ছেলে মো. মাসুম বিল্লাহর ঘরে গুপ্তধন আছে এমন তথ্য জানায় পূর্ব পরিচিত মো: জুয়েল (২৪) নামের প্রতারক চক্রের এক সদস্য। তার বাড়ি ফেনী জেলায়। তবে রাজাপুরে আত্মীয়তার কারণে মাসুমের বাড়িতে তার যাতায়াত ছিলো।

এদিকে গুপ্তধন তুলতে ভারত থেকে তান্ত্রিক সাধক ভাড়া করে আনতে হবে জানিয়ে গত ১৫ এপ্রিল মাসুমের কাছ থেকে এক লাখ টাকা নেয় জুয়েল। পরে দ্বিতীয় ধফায় গত ৩ সেপ্টেম্বর তান্ত্রিক নিয়ে আসার খরচ বাবদ আরও পাঁচ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে নেয় জুয়েল। এরপর গত ১৭ সেপ্টেম্বর জুয়েল, আরিফ ও তারেক মাসুমের বাড়িতে আসে। এসময় তারা মাসুমের ঘরের মাটি খুড়ে স্বচ্ছ কাঁচের একটি পেপার ওয়েট দেখিয়ে গুপ্তধন বলে জানায়। আর ওই গুপ্তধন পরিশোধন করতে সিঁদুর, রক্ত এবং সাপের মাথা কিনতে হবে বলে তৃতীয় দফায় আরও চল্লিশ হাজার টাকা নেয়। পরে বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হলে গত ২১ সেপ্টেম্বর ওই তিন যুবককে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয় মাসুম। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে প্রতারকচক্রের মূলহোতা জুয়েল পালিয়ে যায়। আরিফ ও তারেক ধরা পড়ে।

রাজাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলাম জানান, এঘটনায় মাসুম বাদী হয়ে প্রতারনা ও অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে ওই তিন যুবকসহ অজ্ঞাতদের আসামী করে রাজাপুর থানায় ২১ সেপ্টেম্বর রাতে মামলা করেন। সে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আরিফ ও তারেককে বুধবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে, বলেন রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলাম জানান।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!