টেলিফিল্ম । বিষয়টা ব্যক্তিগত

অনলাইন দেশক

৯২

শহরকেন্দিধক মায়েরা অবসরে যাবার পর কেমন থাকে? চাকরি বা উদে ̈া৩া থেকে অবসর বয়ষ্ক মায়েদের যাপিত
জীবনে সুঃখ-দুঃখ আড়ালেই পড়ে থাকে এ প্রজন্ম ছেলে-মেয়েদের কাছে। নিঃস১⁄২ মাকে সময় দেবার ব্যাপারে উদাস সবাই। চার
দেয়ালের মাঝে মা যখন একা একা নিঃস১⁄২ বোধ করে। একটু সময় কাটানোর জন ̈ কারো সাথে মোবাইলে কথা বলে-এটাই মেনে
নিতে পারে না মৃত্তিকা। শাশুড়ি মায়া চৌধুরীর সব কিছুতেই আড়ি পাতে। বউ মৃত্তিকার কানপড়া শুনে-পিয়ালের হঠাৎ পরিবর্তন
লক্ষ ̈ করে মায়া চৌধুরী। ভালো করে কথা বলছে না। একদিন বিকেলে সেই লোককে বাসার ছাদে দেখতে পায় মৃত্তিকা। মৃত্তিকা
জরুরী কল করে পিয়ালকে আসতে বলে। পিয়াল অফিসের জরুরী মিটিং ফেলে বাসায় আসে। ছাদে গিয়ে ভ‚ত দেখার মতো চমকে
উঠে— লোকটি মায়ের হাত ধরে তুমি করে কথা বলছে। কি যেনো অনুরোধ করছে। মায়া কান্না করছে। মায়ার মাথায় হাত বুলিয়ে
দিচ্ছে। মায়া লোকটির বুকে মাথা লুকায়। এই দৃশ ̈ দেখে পিয়াল উত্তজীত হয়। হাত তালি দিতে দিতে মায়া চৌধুরীকে ভৎর্সনা ও
অপমান করতে থাকে। মাকে সন্দেহ করার জন ̈ পুরো পরিবারে অশান্তি নেমে আসে। মায়া চৌধুরীর জীবনে এমনি এক বাঁক
পরিবর্তন ঘটে যা, অকল্পনীয়। কী সেই ঘটনা? জানতে হলে দেখতে হবে টেলিফিল্ম ‘বিষয়টা ব ̈৩িগত’
‘বিষয়টা ব্যক্তিগত’ টেলিফিল্মটি রচনা করেছেন, এ সময়ের জনপ্রিয় কবি ও নাট ̈কার মিজানুর রহমান বেলাল। পরিচালনা করেছেন
জনপ্রিয় নির্মাতা আদিত ̈ জনি।
মায়া চৌধুরী চরিত্রে অভিনয় করেছেন, মিলি বাসার, মৃত্তিকা চরিত্রে নাদিয়া খান, চৌধুরী সাহেব চরিত্রে আযম খান, পিয়াল চরিত্রে
শাহেদ শরিফ খান অভিনয় করেছেন। এছাড়াও কাকা মাকসুদ, রুহানি, সবুজ ও উর্মি প্রমুখ অভিনয় করেছেন বিভিন্ন চরিত্রে।
‘বিষয়টা ’ টেলিফিল্মেও নির্মাতা আদিত ̈ জনি বলেন-মিজানুর রহমান বেলাল সব সময় ভিন্নধর্মী কনসেপ্ট নিয়ে গল্প লিখেন,
এবারও তাই করেছেন। শিল্পীরা সাবলিল ভাবেই অভিনয় করেছেন। টেলিফিল্মটি চ্যানেল আইয়ে শীঘধই প্রচার হবে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!