দিনাজপুর জেলার সর্বোচ্চ করদাতা হলেন হিলির হারুন উর রশীদ

সালাহউদ্দিন বকুল, হিলি প্রতিনিধি।।

টানা দ্বিতীয় বারের মতো দিনাজপুর জেলার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে নির্বাচীত হলেন হিলি স্থলবন্দর আমদানি রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি ও হাকিমপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন উর রশীদ। এউপলেক্ষ্য তাকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এর আয়কর অনুবিভাগের পক্ষে থেকে সন্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

রংপুর কর অঞ্চলের আয়োজনে বুধবার দুপুর ১২টায় রংপুর শহরের আরডিআরএস এর বেগম রোকেয়া অডিটরিয়ামে এই তাকে সন্মাননা প্রদান করা হয়। এসময় তাকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এর চেয়ারম্যান ও অভ্যন্তরিন সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব আবু হেনা মো:রহমাতুল মুনিম স্বাক্ষরিত একটি সন্মাননা পত্র প্রদান করা হয়।গতবার তিনি দিনাজপুর জেলার মধ্যে ১ম সর্বচ্চো করদাতা হিসেবে নির্বাচীত হয়েছিলেন।

রংপুর কর অঞ্চলের করকমিশনার আবু হান্নান দেলওয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সন্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান, রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, রংপুরের পুলিশ কমিশনার আবদুল আলীম মাহমুদ, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আবু তাহের মো:মাসুদ রানা, কাস্টমস এক্সসাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট রংপুরের কমিশনার শওকত আলী সাদী, রংপুর কর অঞ্চলের অতিরিক্ত কর কমিশনার মঞ্জুর আলমসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

হারুন উর রশীদ তরুন বয়স থেকেই পণ্য আমদানি রফতানি বানিজ্য শুরু করেন। তিনি কাচামরিচ, পেয়াজ, চাল, পাথর, সাজনাসহ বিভিন্ন পণ্য আমদানি করেন। এর পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ ভারতে আলুসহ বিভিন্ন পণ্য বিদেশে রফতানি করেন। তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত আমদানি রফতানিকারক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এছাড়া অস্থিতিশীল মুহুর্তে দেশে বাজার নিয়ন্ত্রনে আনতে সরকারি মুল্য নিয়ন্ত্রন সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) পেয়াজ সরবরাহ করেন তিনি। এছাড়াও তিনি এফবিসিসিআইয়ের সদস্য, দিনাজপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্টিজের পরিচালক, এছাড়া তিনি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি ও হাকিমপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন উর রশীদ বলেন, আমি গতবার দিনাজপুর জেলার ১ম সর্বচ্চো করদাতা নির্বাচীত হয়েছিলাম এবারে দ্বিতীয়বারের মতো দিনাজপুর জেলার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে নির্বাচীত হয়েছি। সর্বোচ্চ করদাতার সন্মাননা পেয়ে নিজের মধ্যে অন্যরকম একটা অনুভতি কাজ করছে। আমি মুলত আমদানি রফতানি ব্যবসার সাথে জড়িত, এধরনের সন্মাননা প্রাপ্তি আমার এই ধরনের ব্যবসার আওতাকে আরো বাড়িয়ে তুলবে। বিগত দিনে যেভাবে দেশের বিভিন্ন অস্থিতিশীল পরিস্থিতিতে বাজার নিয়ন্ত্রনে আনতে পেয়াজ, চাল, কাচামরিচসহ অন্যান্য পণ্য আমদানি করে বাজার নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা চালিয়েছি। এর পাশাপাশি টিসিবিকে এসব পণ্য দিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রনে আনতে সহযোগীতা করেছি। দেশের মানুষ যেন কমদামে এসব পণ্য খেতে পারে কিনতে পারে সেজন্য আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!