দুই জঙ্গি আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্ত এলাকায় সর্তকতা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

৫৩

ঢাকার নিম্ন আদালত চত্বর থেকে ফয়সল আরেফিন দীপন এবং ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার দুই জঙ্গি আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্ত এলাকাজুড়ে সতর্ক রয়েছে পুলিশ ও বিজিবি। আখাউড়া স্থলবন্দর পুলিশ ইমিগ্রেশন কক্ষে পালিয়ে যাওয়া নিষিদ্ধঘোষিত জেএমবি সদস্য মইনুল হাসান শামীম ও আবু সিদ্দিক সোহেলের ছবি সাঁটিয়ে দিয়েছে। এছাড়াও বিজিবির পক্ষ থেকে প্রতিটি বিওপিকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পালিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গি যাতে কোনো ভাবেই সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে না যেতে পারেন, সেজন্য রবিবার বিকেল থেকেই বাড়তি সতর্ক অবস্থান নিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। আখাউড়া স্থলবন্দর ইমিগ্রেশন পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোর্শেদুল আলম জানান, আমরা সতর্ক অবস্থায় রয়েছি। বিধি মোতাবেক সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিজিবি ৬০ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেঃ কর্নেল আশিক হাসান উল্লাহ জানান, এ বিষয়ে নির্দেশনা আসার পর প্রতিটি বিওপিকে সতর্ক অবস্থানে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান বলেন, জঙ্গিরা যেন পালিয়ে যেতে না পারে, সেই ব্যাপারে আমরা সতর্ক রয়েছি।

উল্লেখ্য, নিষিদ্ধ ঘোষিত জেএমবি সদস্য মইনুল হাসান শামীমের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতকের মাধবপুর গ্রামে ও ও আবু সিদ্দিক সোহেলের বাড়ি লালমনিরহাটের আদিতমারীর ভেটোশ্বর গ্রামে। রবিবার দুপুরে ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামীকে ছিনিয়ে নেয় জঙ্গিরা।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!