দুটি সন্তান নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টাকারী সেই মা সুস্থ্য হয়ে ফিরেছেন

নড়াইল প্রতিনিধি

নড়াইলে স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের পর নির্যাতন ও ভরণপোষণ না দেয়ার কষ্টে দুটি সন্তানসহ আত্মহত্যার চেষ্টাকারী শিউলী বেগম সুস্থ্য হয়ে তার দুটি সন্তান নিয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। শনিবার দুপুরে সদর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ছাড়পত্র দিলে তিনি হাসপাতাল ছেড়ে শহরের ভওয়াখালীর ভাড়া বাসায় ফেরেন। হাসপাতালে ৪দিন যাবৎস চিকিৎসায় তিনি ও তার দুটি সন্তান সুস্থ্য হয়ে ওঠেন।
এদিকে সন্তান দুটিকে পড়ালেখার স্বপ্ন নিয়ে তিনি কয়েকদিনের মধ্যে নড়াইল ছেড়ে পিতুভূমি নরসিংদী জেলায় চলে যাবেন বলে জানিয়েছেন।

জানাগেছে, নড়াইল পৌরসভার ভওয়াখালী এলাকার ভাড়া বাসায় দুটি শিশু সন্তান নিয়ে বাস করতেন দরিদ্র শিউলী বেগম। স্বামী মিঠু শেখ দ্বিতীয় বিয়ে করায় প্রথম স্ত্রী শিউলীর তেমন খোঁজখবর নিতেন না। গত ১৮ জানুয়ারী স্বামী মিঠু শেখ শিউলীর বাসায় আসে। এসময় তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডতার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে শিউলী বেগমকে অমানবিক মারধর করে চলে যায় স্বামী মিঠু। এতে মনের কষ্টে ও ক্ষোভে দুটি সন্তান রাব্বিকে (৭) ও ইলমাকে (৪) জুসের মধ্যে কীটনাশক খাইয়ে নিজেও কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। বিষয়টি আশেপাশের লোকজন টের পেয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

নড়াইল সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ সুজল কুমার বকসী জানান, মা ও শিশু দুটি কীটনাশক পান করে গত ১৮ জানুয়ারী দুপুরে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। চিকিৎসকদের আন্তরিক চেষ্টায় সুস্থ্য হওয়ার পর শনিবার তাদেরকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনার পর স্বামী মিঠু শেখ স্ত্রী সন্তানদের আর কোন খোঁজখবর নেননি। প্রতিবেশিরা জানান, ঘটনার পর থেকে মিঠু শেখ প্রথম স্ত্রীকে নিয়ে পলাতক রয়েছে।

হাসপাতাল ছেড়ে যাবার কিছুক্ষণ আগে শিউলী বেগম বলেন, ‘ স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের পর অবহেলা ও নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে মরে যেতে চেয়েছিলাম। সন্তান দুটিকে রেখে গেলে অবহেলায় কষ্ট পাবে। তাছাড়া কার কাছে রাখবো সে কথা ভেবে তাদেরকে নিয়েই মরতে চেয়েছিলাম। ওদেরকে জুসের মধ্যে বিষ খাওয়ায়ে আমি নিজে খেয়েছিলাম। আল্লাহ আমাদের বাঁচিয়ে দেয়েছে। এখন আর নড়াইলে থাকবো না। আবারও আমাদের ওপর নির্যাতন নেমে আসবে। তাই আমার জন্মস্থান নরসিংদী জেলায় চলে যাবো। সেখানে গিয়ে কোথাও কাজ নিবো এবং সন্তান দুটিকে লেখাপড়া শেখাবো।’

এদিকে নড়াইল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অসুস্থ্য শিউলী বেগমকে ৫হাজার নগদ সহায়তা দেয়া হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় নড়াইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ ফখরুল হাসান নড়াইল সদর হাসপাতালে শিউলী বেগমকে দেখতে যান। এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আরো সহযোগিতার আশ^াস দেয়া হয়েছে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!