নড়াইলে মধুমতি পাঠাগারে জিপিএ ৫প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

নড়াইল প্রতিনিধি

নড়াইলের লোহাগড়ায় মধুমতি পাঠাগারের পক্ষ থেকে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। আজ সকাল ১০টায় নোয়াগ্রাম এমদাদ-হনজো মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের হলরুমে এ সংবর্ধনা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে এল.এস.জে.এন ইউনিয়ন ইন্সটিটিউশন, মরিচপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, এমদাদ-হনজো মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, আজিজ-আশরাফ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও রঘুনাথপুর আলিম মাদ্রাসার ২০২২ সালের এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ৩০জন শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। সংবর্ধিত শিক্ষার্থীদের হাতে সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ উপহার হিসেবে তুলে দেন প্রধান অতিথি লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজগর আলী।

মধুমতি পাঠাগারের সভাপতি ও এমদাদ-হনজো মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ড. সৈয়দ এমদাদুল হকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মহসিন আলীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহবায়ক মোঃ ওয়ালিউর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা সৈয়দ ইয়াজুল হক, সুইডেন বিশ^বিদ্যালয়ের প্রফেসর সৈয়দ মনিরুজ্জামান, লোহাগড়া সরকারী আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের প্রফেসর আবুল বাশার সুমন, এমদাদ-হনজো মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কাজী শামসুল হক, এল.এস.জে.এন ইউনিয়ন ইন্সটিটিউশনের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ আমজাদ হোসেন, মধুমতি পাঠাগারের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ সহ পাঠাগের আজীবন সদস্যবৃন্দ ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তব্যকালে প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আজগর আলী বলেন, ‘মধুমতি পাঠাগারের কার্যক্রম ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে আলোকিত মানুষ ও সমাজ গঠনে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।’
এছাড়া মধুমতি পাঠাগারের সদস্যদের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের অনেক দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য ও ভবিষ্যতে শিক্ষার্থীদের শিক্ষামুলক বিভিন্ন সহযোগিতারও আশাস দেন।

মধুমতি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ড. সৈয়দ এমদাদুল হক জানান, এলাকার অস্বচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা, তরুন সমাজ ও শিক্ষিত ব্যক্তিদের বই পড়ার আগ্রহ সৃষ্টি, মানবিক ও শিক্ষিত সমাজ গঠন, সামাজিক ও পারিবারিক মুল্যবোধ তৈরি, সমৃদ্ধি সমাজ গঠনসহ জনসচেতনামূলক কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে এলাকার সুশীল সমাজের উদ্যোগে ২০২১ সালে পাঠাগারটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!