নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় সোনাগাজী পৌরসভা নির্বাচনে আ.লীগ প্রার্থী খোকন বিজয়ী, আটক ২৩

জাবেদ হোসাইন মামুন, সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি।।

২৭১

পাঁচস্তরের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় সোনাগাজী পৌরসভা নির্বাচনে আ.লীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন ৫ হাজার ৩৬১ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোবাইল প্রতিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু নাছের পেয়েছেন ৭০৭ভোট। সোনাগাজী পৌরসভায় মোট ভোটার ১৫ হাজার ৯৮৫জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ৭হাজার ৮৫৮ এবং পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ১২৭ জন।

সোনাগাজী আল হেলা কেন্দ্রে সকাল ১০টার দিকে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ছাড়া সকাল ৮টাকা বিকাল ৪টা পর্যন্ত ইভিএম পদ্ধতিতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলে। ৯টি ভোট কেন্দ্রে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ছাড়াও দুইজন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সহ ১৪ জন ম্যাজিস্ট্রেট, দুই প্লাটুন বিজিবি, তিন ইউনিট র‍্যাব, ৪৬০জন পুলিশ ও ৫৬০জন আনসার সদস্য ভোটারদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলেন। ভোট কেন্দ্রে অবৈধভাবে প্রভাব বিস্তার অভিযোগে ২৩ জনকে আটক করেছে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা। তাদের মধ্যে মোয়াজ্জেম হোসেন আরিফকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে এবং ২২জনকে সন্ধ্যায় মুছলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

সকাল ৮টা থেকেই ভোটারদের লাইনে দাড়িয়ে ভোট দেয়ার দৃশ্য ছিলো চোখে পড়ার মত। ৯টি কেন্দ্রের ৪৯টি বুথে ৭৫টি ইভিএম মেশিনে ভোট গ্রহণ করা হয়। প্রথমবার ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করায় অনেক ভোটারকে বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়েছে। ৯ কেন্দ্রে ৯জন ইভিএম মেশিনের টেকনেশিয়ান সার্বক্ষণিক নিয়োজিত ছিলেন। নির্বাচনে আ.লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী অ্যাড. রফিকুল ইসলাম খোকন ছাড়াও মেয়র পদে আরো তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করেছেন। নির্বাচনে ৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে নির্বাচিত কাউন্সিলরেরা হলেন , ১নং ওয়ার্ডে মো. মোস্তফা (পাঞ্জাবি) ৫৫৯ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোশারফ হোসেন বাবলু ডালিম প্রতিকে ২১৫, ২নং ওয়ার্ডে হেদায়েত উল্যাহ উট পাখি প্রতিকে ৩৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোাহাম্মদ আলী ফরহাদ ল্যাম্প পোস্ট প্রতিকে ২৬৮ ভোট, ৩নং ওয়ার্ডে ইমাম উদ্দিন পানির বোতল প্রতিকে ৪০৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আবদুল হালিম সোহেল উট পাখি প্রতিকে পেয়েছেন ১০৭ ভোট, ৪নং ওয়ার্ডে বেলায়েত হোসেন বেলাল উটপাখি প্রতিকে ৩৮৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আজগর হোসেন পাঞ্জাবি প্রতিকে পেয়েছেন ২৫৪ভোট, ৫নং ওয়ার্ডে নাছির উদ্দিন রিপন উটপাখি প্রতিকে ৮৫৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বাহার উল্যাহ পাঞ্জাবি প্রতিকে পেয়েছেন ২৬ভোট, ৬নং ওয়ার্ডে আইয়ূব আলী খান উট পাখি প্রতিকে ৫৬৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মাইন উদ্দিন মহিম ডালিম প্রতিকে পেয়েছেন ৩৬০ভোট, ৭নং ওয়ার্ডে জামাল উদ্দিন নয়ন ৪০৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শেখ আবদুল হালিম মামুন উট পাখি প্রতিকে পেয়েছেন ৩১৭ভোট, ৮নং ওয়ার্ডে শেখ কলিম উল্যাহ রয়েল পানির বোতল প্রতিকে ৪১২ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জহির উদ্দিন উট পাখি প্রতিকে পেয়েছেন ২৪৬ভোট। ৯নং ওয়ার্ডে নাজিম উদ্দিন ভূঞা পাঞ্জাবি প্রতিকে ৪৭১ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আকবর হোসেন পেয়েছেন ২৮১ ভোট। সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ১, ২ ও ৩ নং মনিহার বেগম আনারস প্রতিকে ১৪০২ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি উম্মে ফাতেমা টেলিফোন প্রতিকে পেয়েছেন ৫৯৮ভোট, এর আগে ৪,৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে তাছলিমা আক্তার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডে মর্জিনা আক্তার আনারস প্রতিকে ১১১৬ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শাহানা আক্তার টেলিফোন প্রতিকে পেয়েছেন ১১০১ভোট।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!