পঞ্চগড়ে নারীকে উত্যক্ত করায় বহিস্কার মাদ্রাসা শিক্ষক, সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকের উপর হামলা

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি।।

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় এক নারীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে রবিউল ইসলাম রুবেল নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে বহিস্কার করার নিউজ করায় পঞ্চগড়ে বাংলাটিভির সাহসী নির্ভিক সাংবাদিক ডিজার হোসেন বাদশার উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পঞ্চগড় সদর থানায় একজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত কয়েক জনের নামে লিখিত অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী ওই সাংবাদিক। অন্যদিকে আইন শৃঙ্খলায় সাংবাদিক মহলে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নসহ ক্ষোভ বিরাজ করছে। এ ঘটনায় অপরাধীদের দ্রুত আটকের দাবী জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা।

রোববার (১৪ নভেম্বর) রাত ৯টার পরে পঞ্চগড় সদর উপজেলার সাতমেরা ইউনিয়নের শতরংপাড়া গ্রামে কালভাটের উপর সড়ক এই ঘটনাটি ঘটে।

অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম রুবেল জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের পুর্ব বামনপাড়া (সেন্টার নামক) এলাকার আব্দুল গফ্ফারের ছেলে। সে একসময় জামাতে ইসলাম ছাত্র শিবিরের সদস্য থাকলেও বর্তমানে সে বাংলাদেশ ইসলামিক আন্দোলন তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর শাখার উন্নতম সদস্য। এদিকে সাংবাদিক ডিজার হোসেন বাদশা বাংলা টিভির পঞ্চগড় প্রতিনিধি হওয়ার পাশাপাশি সুনাম ধন্য পাথর বালী ব্যাবসায়ী পঞ্চগড় পাথর বাজার ট্রেডার্স এর সত্তাধিকারী।

থানার লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রোববার সকালে তেঁতুলিয়া উপজেলায় এক নারীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে রবিউল ইসলাম রুবেল নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে নিউজ করে সাংবাদিক ডিজার হোসেন বাদশা। এর পর বিষয়টি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পেলে সংবাদের জেরে হামলার জন্য আগে থেকে ওথ পেতে থাকে রুবেল। একই দিন রাতে সংবাদের কাজ শেষে পঞ্চগড় শহর থেকে গ্রামের বাড়ির উদ্দেশ্যে রাতে মোটরসাইকেল যোগে রওনা হলে সতরংপাড়া গ্রামে কালভাটের উপর পৌছালে অভিযুক্ত বহিস্কৃত মাদ্রাসা শিক্ষক রুবেল ২/৩ জনকে নিয়ে কালভাটের উপর চলন্ত মোটরসাইকেলের উপর হামলা চালায়। একসময় সাংবাদিক বাদশা মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গেলে দুইজন তার গলায় থাকা মাফলার টেনে গলা টিপে ধরে। পরে রুবেল তাকে মারধর করে। এসময় রুবেল সাংবাদিকের পকেটে ব্যবসায়ীক কাজে রাখা ৬৪ হাজার ৬৮০ টাকা জেকেটের পকেট ছিড়ে দিয়ে টাকা নিয়ে নেয়। একই সাথে হঠাৎ সড়কে লোকের আগম দেখতে পেতে ঘটনাস্থল থেক মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায়। মারধরের কারণে আহত হয় ওই সাংবাদিক। পরে স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ভর্তি করায়। চিকিৎসা শেষে সাংবাদিক বাদশা স্বাক্ষীদের নিয়ে পঞ্চগড় সদর থানায় উপস্থিত হয়ে রাতেই লিখিত অভিযোগ করে।

সন্ত্রাসী হামলার শিকার সাংবাদিক ডিজার হোসেন বাদশা বলেন, নারীকে উত্যক্ত করার দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক রুবেলকে বহিস্কার করার নিউজ প্রকাশের জেরে হত্যার জন্য আমার উপর এই সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে রুবেল। যখন আমাকে তারা গতিরোধ করে মারধর করে তখন রুবেলকে চিনতে পারলেও অপর দুই-তিনজনকে চিনতে পারি নি। ঘটনার প্রায় আধাঘন্টা আগে আমি আমার ব্যবসার এক গ্রাহকের পাঠানো টাকা বিকাশ থেকে তুলি। বাড়ি যাওয়ার সময় রুবেলসহ তার সহযোগীরা মারধর করে আমার টাকা লুট করে পালিয়ে যায়। আমি প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে এই ঘটনায় পঞ্চগড় সদর থানায় অভিযোগ করেছি। অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার ও আমার টাকা উদ্ধারসহ তাদের বিচার দাবী করছি।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মামলা হলে আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে।

জানা যায়, গত রোববার (১৪ নভেম্বর) বেশ কয়েকজন মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারসহ নারী দেহ ব্যবসায়ী ও অবৈধ সম্পর্ক করে বিয়ে করাসহ গত ১০ নভেম্বর (বুধবার) এক নারীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে ভজনপুর এলাকার মাদ্রাসা থেকে তাকে স্থায়ী ভাবে বহিস্কার করার পর অপর আরেকটি মাদ্রাসা থেকে শনিবার (১৩ নভেম্বর) রুবেলকে বহিস্কার করার নিউজ করা হয়। যার কারণে এই সন্ত্রাশী হামলার ঘটনাটি ঘটানো হয় বলে অভিযোগে জানা গেছে।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!