পঞ্চগড়ে রাতের আধারে ১৫ হাজার বাঁধা কপির গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড়

৭১

পঞ্চগড়ের বোদায় শত্রুতা করে আবুল কাশেম নামে এক বর্গা চাষীর এক একর জমির ১৫ হাজার বাঁধা কপির গাছ রাতের আধারে কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ওই চাষী।

মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) গভির রাতে জেলার বোদা উপজেলার চন্দনবাড়ি ইউনিয়নের লাঠুয়াপাড়া এলাকার ফসলী মাঠে এ ঘটনা ঘটে। ফসলের ক্ষেত কেটে ফেলার ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়েছেন স্থানীয় কৃষকসহ জনপ্রতিনিধিরা। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কৃষি বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছে ক্ষতিগ্রস্থ্য কৃষক।

ক্ষতিগ্রস্ত চাষী আবুল কাশেম বলেন, কয়েক বছর ধরে বর্গা নিয়ে এক একর জমিতে বাঁধা কপির চাষ করে আসছেন। মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কঠোর পরিশ্রম করে বাঁধা কপির গাছ বড় করেছেন। বুধবার সকালে ক্ষেতে গিয়ে দেখি কে বা কারা বাঁধা কপির গাছগুলো কেটে দিয়েছে। চারা, সার কীটনাশকসহ বাঁধা কপির চাষাবাদ করতে প্রায় লাখ দুয়েক টাকা ব্যয় হয়েছে। দুর্বৃত্তরা পুরো ক্ষেতের গাছ কেটে ফেলেছে। আমার স্বপ্ন নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা। আশা ছিল এ বছর ক্ষেত থেকে ৭/৮ লাখ টাকার বাঁধা কপি বিক্রি করব। কিন্তু আমার সব শেষ হয়ে গেছে। কীভাবে আমার দেনা পরিশোধ করব এ নিয়ে চিন্তিত। যারা আমার সঙ্গে শত্রুতা করে ফসলের গাছ কেটে দিয়েছে তাদের বিচার ও ক্ষতিপুরণ চান ক্ষতিগ্রস্থ ওই চাষী।

খবর পেয়ে বোদা উপজেলা কৃষি অফিসার আল মামুন অর রশিদ ও চন্দনবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম প্রধান বুধবার সকালে ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষেত পরিদর্শন করেছেন।

বোদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.সোলেমান আলী বলেন,খবর পেয়ে কৃষি অফিসরকে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহনের নিদের্শ প্রদান করা হয়েছে।

বর্গাচাষী আবুল কাশেম বাঁধা কপি চাষের জন্য ওই এলাকার আজাহারুল ইসলাম রুবেলের কাছে এক একর জমি এক বছরের জন্য ৫০ টাকায় বর্গা নেন।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!