ফরিদপুরে এক স্ত্রী নিয়ে দুই স্বামীর মারামারি

অনলাইন ডেস্ক।।

ফরিদপুরের বোয়ালমারীয় স্ত্রীকে নিয়ে দুই স্বামীর মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় প্রথম স্বামীসহ প্রায় চারজন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে সোমবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ব্যক্তিরা হলেন, রমেন বিশ্বাস (৪৩), রতন বিশ্বাস (৬০), পৌড় বিশ্বাস (৩৩) ও বিপ্লব বিশ্বাস (৩৪)।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পূর্বমুড়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী রমেন বিশ্বাস। প্রবাসে থাকার সুবাদে তার স্ত্রীর সঙ্গে একই গ্রামের রবিন বিশ্বাসের ছেলে নিতাই বিশ্বাসের (৩২) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। হঠাৎ করে তিনমাস আগে তারা পালিয়ে বিয়ে করে। প্রায় ২০ দিন পর অক্টোবরে তাদের ফিরিয়ে এনে এ লাকায় এক সালিশ বৈঠক বসে। এ সময় সালিশে রমেন বিশ্বাসের স্ত্রী দ্বিতীয় স্বামী নিতাইয়ের সঙ্গে সংসারের সিদ্ধান্ত নেন। তবে সম্প্রতি রমেন দেশে ফিরে এলে স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করায় দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে বিরোধ শুরু হয়।

এদিকে সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রমেনের বাবা রতন বিশ্বাস বাড়ির পাশে তেতুলিয়া মাদরাসার মোড়ে দোকানে এলে নিতাইসহ তার লোকজন হামলা চালায়। পরে সংবাদ পেয়ে রতন বিশ্বাসের ছেলে রমেন বিশ্বাস, বিপ্লব বিশ্বাস, পৌড় বিশ্বাস এগিয়ে গেলে তাদের মারধর করে। এক পর্যায়ের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় চারজন আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। তাদের মধ্যে রমেন বিশ্বাসকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. জাফর ফকির জানান, প্রায় তিন মাস আগে নিতাই প্রতিবেশী রমেনের স্ত্রীকে নিয়ে চলে যায়। এ ঘটনা নিয়ে একবার গ্রামে সালিশ বৈঠক হয়। স্ত্রীকে নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এ সময় চারজন আহত হয়েছেন।

বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম জানান, সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় চারজন আহত হয়েছেন। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!