বাগমারা ইউপি নির্বাচনে তরুণ্যদেরকে প্রাধান্য দেয়া হবে

শান্তনু হাসান খান(বিশেষ প্রতিনিধি), কুমিল্লা।।

৯১২

সরকারের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল (লোটাস কামাল)’র দিক নির্দেশনায় এবং পৃষ্ঠপোষকতায় গড়ে উঠেছে লালমাই উপজেলা। এই লালমাই উপজেলার প্রথম পরিষদের চেয়ারম্যান-প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আবদুল মালেক। তার পৃষ্ঠপোষকতায় এখানকার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের সার্বিক উন্নয়ন এগিয়ে যাচ্ছে।

লালমাই উপজেলার প্রাণকেন্দ্র বাগমারা। এখানে দুটি ইউনিয়ন পাশাপাশি। উত্তরে আবুল কাশেম আর দক্ষিণে লোকমান হোসেন। আগামীতে প্রার্থীতা চাইবেন নৌকার প্রতীকের জন্য। তবে এবার মাননীয় মন্ত্রীর সাফ চিন্তা ভাবনা একটাই। আর তা হলো তারুণ্যের প্রতীক নিয়ে যারা দীর্ঘদিন এলাকায় তৃণমূল থেকে উঠে এসেছে তাদেরকেই নমিনেটেড করা উচিত। আর সেই আলোকে এবার বাগমারার উত্তরের এমদাদুল হক মজুমদার জনপ্রিয়তার কারণে এগিয়ে আছে অনেকটাই।

এমদাদুল হক বাগমারা উত্তরের ৯নং ওয়ার্ডের ভোটার। বেড়ে উঠেছেন এ জনপদে। মাটি ও মানুষের সাথে সম্পৃক্ত সেই ছোট বেলা থেকেই। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালন করে আসছেন। তার প্রিয় নেত্রী-জননেত্রী শেখ হাসিনা। আর প্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এলাকার সমাজসেবক ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল (লোটাস কামাল)। তার দিক নির্দেশনায় আগামী দিনগুলোতে তিনি এলাকায় জনপ্রতিনিধি হওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেন।

পড়াশোনা করেছেন ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজে। ছাত্রাবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আর সেই সময় তার চাচা প্রয়াত সাংসদ অধ্যক্ষ আবুল কালাম মজুমদারের সানিধ্য পেয়ে রাজনীতিতে নিজেকে বেগবান করে তোলেন। তিনি বলেন, আমার পারিবারিক ঐতিহ্য আর এলাকার জনগণের সম্পৃক্ততার বিষয়টি বিবেচনা করলে ইনশাল্লাহ আমি দল থেকে নমিনেটেড হতে পারবো। আর নির্বাচিত হলে এ ইউনিয়নকে অত্যাধুনিক ও ডিজিটাইলাইজড ইউনিয়ন হিসেবে জনগণকে উপহার দেয়ার চেষ্টা করবো।

এমদাদুল হক আরো বলেন, আমাদের এ নবগঠিত লালমাই উপজেলায় ৯টি ইউনিয়নের ব্যাপক এলাকায় ইতিমধ্যেই অনেক ব্রিজ-কালভার্ট, গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন, রাস্তাঘাট, শতভাগ বিদ্যুতায়ন ও এলাকার কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোকে ঢেলে সাজাবার চেষ্টা করেছেন উপজেলা পরিষদের মাধ্যম তথা মাননীয় মন্ত্রীর দিক নির্দেশনায়। যদি আমি নির্বাচিত হতে পারি এ ধারাবাকিতা রক্ষা করার চেষ্টা করবো আগামী দিনগুলোতে।

আমি কোনো প্রফেশনাল চেয়ারম্যান হয়ে-টিআর-কাবিখা’র পেছনে দৌড়াতে চাই না। জনগণের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আমার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এদিকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মালেক বলেন, তারুণ্যের প্রতীকে শিক্ষিত এবং মার্জিত প্রার্থী হিসেবে এমদাদুল হক মজুমদার অনেকটাই পজেটিভ বলা যায়।

আয়েশা আক্তার/অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!