বিশ্বরেকর্ড গড়ে জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে টাইগাররা

অনলাইন ডেস্ক।।

১৩২

চট্টগ্রাম টেস্টে ভারতের দেওয়া ৫১৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে বাংলাদেশ। তবে ১৪৫ বছরের টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪১৮ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড রয়েছে। ফলে জয়ের জন্য বাংলাদেশকে গড়তে হবে বিশ্বরেকর্ড। এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে ৬ উইকেটে ২৭২ রান নিয়ে চতুর্থ দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ দল।

বিশ্বরেকর্ড গড়ে জয়ের লক্ষ্য নিয়ে শেষ দিনে ব্যাটিংয়ে নেমেছে টাইগাররা। টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান অপরাজিত ৪০ রানে ও মেহেদি হাসান মিরাজ ৯ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন। ফলে জয়ের জন্য শেষ দিনে আরও ২৪১ রান করতে হবে সাকিব আল হাসানের দলকে, হাতে আছে ৪ উইকেট।

শনিবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বিনা উইকেটে ৪২ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করেছিল টাইগাররা। দুই ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ও অভিষিক্ত জাকির হাসান প্রথম সেশনে কোনো বিপর্যয় হতে দেননি। এর মধ্যে প্রথম ইনিংসে ‘গোল্ডেন ডাক’ উপহার দেওয়া শান্ত ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটি তুলে নিয়েছিলেন, যেটি তার ১৫ ইনিংস পর ফিফটি।

তবে দ্বিতীয় সেশনে দলীয় ১২৪ রানে উমেশ যাদবের বলে খোঁচা দিয়ে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে দেন শান্ত। স্লিপে থাকা বিরাট কোহলি সেই ক্যাচ মিস করে দিলেও ভাগ্যক্রমে গ্লাভসবন্দী করেন উইকেট-কিপার ঋষভ পান্ত। বিদায়ের আগে ১৫৬ বলে ৭টি বাউন্ডারিতে ৬৭ রানের ইনিংস খেলেন শান্ত।

প্রথম উইকেট হারিয়ে ফেলার পর সেশনে আরও দুই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। অক্ষর প্যাটেলের বলে ৫ রান করা ইয়াসির আলী রাব্বি বোল্ড হয়ে ফেরেন। এরপর কুলদ্বীপ যাদবের বলে উমেশ যাদবের হাতে ক্যাচ দিয়ে দেন ১৯ রান করা লিটন দাসও।

তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে অভিষেক টেস্টে দারুণ এক ইনিংস খেলে সেঞ্চুরি তুলে নেন ওপেনার জাকির হোসেন। যার ফলে আমিনুল ইসলাম বুলবুল, মোহাম্মদ আশরাফুল ও আবুল হাসান রাজুর পর চতুর্থ ব্যাটার হিসেবে নিজের প্রথম টেস্টে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন এই বাঁহাতি ব্যাটার।

তবে ২২৪ বলে ১৩ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় কাঁটায় কাঁটায় ১০০ রান করে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে স্লিপে থাকা কোহলির হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন। এরপর অক্ষর প্যাটেলের এক ওভারে বিদায় নেন মুশফিকুর রহিম (২৩) ও নুরুল হাসান সোহান (৩)।

সেখান থেকে দিনের শেষ পর্যন্ত আর বিপদ হতে দেননি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান আর ওয়ানডে সিরিজ সেরা মেহেদি হাসান মিরাজ। স্বীকৃত ব্যাটারদের শেষ জুটিতে বাংলাদেশের যে ক্ষীণ আশা বাকি, সেটি তাদের ব্যাটে ভর করে।

এর আগে শুক্রবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেটে ১৩৩ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেছিল বাংলাদেশ। তবে এদিন স্কোরবোর্ডে আর মাত্র ১৭ রান যোগ করতেই ১৫০ রানে অলআউট হয়ে যায় টাইগাররা। এই ইনিংসে ভারতের পক্ষে বোলিংয়ে কুলদ্বীপ যাদব ৫ ও মোহাম্মদ সিরাজ ৩ উইকেট নেন।

বাংলাদেশকে ফলো অনে ফেলার সুযোগ থাকলেও তা না করে আবারও ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। এবার টাইগার বোলারদের কোনো পাত্তা না দিয়ে ওপেনার শুভমান গিল ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন। এ ছাড়া আগের ইনিংসের সর্বোচ্চ ৯০ রান সংগ্রাহক চেতেশ্বর পূজারাও শতকের দেখা পান। ফলে ২ উইকেটে ২৫৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। বাংলাদেশের পেসার খালেদ আহমেদ ও স্পিনার মিরাজ ১টি করে উইকেটের দেখা পান।

দিনের শেষ বিকেলে বাংলাদেশের উইকেট তুলে নিয়ে বিপদে ফেলতে চেয়েছিল ভারত। তবে টাইগার দুই ওপেনার নাজমুল হাসান শান্ত আর জাকির হাসান দিনের শেষ দিকে ১২ ওভার ব্যাট করে কোনো বিপর্যয় হতে দেননি। ফলে বিনা উইকেটে ৪২ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শেষ করে টাইগাররা।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!