মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরে নগরজুড়ে উচ্ছ্বাস ঐক্যবদ্ধ নেতা-কর্মীরা,ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি ।

নিজস্ব প্রতিবেদক

৭১

 

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরে নগরজুড়ে বইছে উচ্ছ্বাস, চলছে সাজসাজ রব। সর্বত্র উৎসবের আমেজ।আয়োজন সফল করতে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। সম্মেলন সফল করতেঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। একটি সুশৃংখল, সফল ও সার্থক সম্মেলন কেন্দ্রিয় নেতাদের উপহার দিতে চায় তাঁরা।

কাউন্সিলর-ডেলিকেটর ছাড়াও দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের মধ্যে কাউন্সিলকে ঘিরে বাড়তি উৎসাহ লক্ষ্য করা গেছে। কারণ বর্তমান কমিটির নেতৃত্বেই নানা প্রতিকূলতা ডিঙ্গিয়ে কুমিল্লা সিটিনির্বাচনে প্রথম জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। এ কারণে নেতা-কর্মীরা রয়েছেন অনেকটা খোশ আমেজে। জয়ের আনন্দে উদ্বেলিত নেতা-কর্মীরা দলের প্রথম কাউন্সিল উদযাপন করতে চায় উৎসব আমেজে। এ কাউন্সিলর শেষপর্যন্ত জনসভায় রুপ নিতে পারে এমন আভাস পাওয়া যাচ্ছে। তাই টাউন
হল মাঠের আশেপাশের সড়ক ও কান্দিরপাড় এলাকায় প্রজেক্টর স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে প্রস্তুুতি কমিটি।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি জানান, সম্মেলন কে ঘিরে দলের নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ, উল্লাসিত-উজ্জীবিত। ঘুরে দেখেছি নগরীর ২৭ টি ওয়ার্ডেই আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কমীরা ব্যাপক প্রস্তুুতি নিয়েছে। মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন একটি উৎসবে পরিনত হবে ইনশাল্লাহ। আগামী ৫ নভেম্বর শনিবার প্রথমবারের মতো কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি। সম্মেলন উদ্বোধন করবেন সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি, প্রধান বক্তা হচ্ছেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি এবং বিশেষ অতিথি থাকবেন সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি। স্বাগত বক্তব্য রাখবেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও সিটি মেয়র আরফানুল হক রিফাত। সভাপতিত্ব করবেন মহানগর আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি। এছাড়া কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখবেন।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে ব্যাপকপ্রস্তুতি গ্রহণ করেছে মহানগর আওয়ামী লীগ। এ সম্মেলন দলের সকল  স্তরের নেতা-কর্মীদের মিলন মেলায় পরিনত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেনপ্রস্তুতি কমিটির নেতৃবৃন্দ। ইতিমধ্যে সম্মেলনের জন্য কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিশাল প্যান্ডেল সাজানো হচ্ছে। গত ৩০ অক্টোবর এ প্যান্ডেলে অনুষ্ঠিত হয়েছিল কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। ওই অনুষ্ঠানে ঢাকায় গুরুত্বপূর্ণ দলীয় মিটিং থাকায় প্রধান অতিথিসহ কেন্দ্রিয় দুই নেতারা আসেননি। কিন্তু মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে কেন্দ্রিয় নেতারা আসবেন অনেকটা নিশ্চিত। তাই বাড়ানো হচ্ছে প্যান্ডেলের কলেবর ও সাজসজ্জা।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক কুমিল্লা  মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র আরফানুল হক রিফাত বলেন, আমাদের সম্মেলনের প্রস্তুতি খুব ভালো। ২৭টি ওয়ার্ডেই আমরা মিটিং করেছি। সর্বত্র নেতা-কর্মীরা বেশ উৎফুল্ল। আগামী ৫ নভেম্বর সারা দেশের জন্য অনুকরনীয় একটা সফল-সার্থক
সম্মেলন আমরা উপহার দিব ইনশাল্লাহ। প্রসঙ্গত, কুমিল্লা  সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠার ছয় বছর পর ২০১৭ সালের
২২ জুলাই কেন্দ্র থেকে প্রথমবারের মতো মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে সভাপতি করা হয় কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহারকে আর সাধারণ সম্পাদক করা হয় বর্তমান মেয়র আরফানুল হক রিফাতকে। বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই মহানগরের ২৭  ওয়ার্ডেই পৃথকভাবে বিশাল আয়োজনে গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সম্মেলন করে মহানগর আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা হয়েছে। যা সারাদেশের জন্য অনুকরনীয় বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!