মেডিটেশন থেকে ভ্যাট প্রত্যাহারের আবেদন বিশিষ্টজনদের

মানিক শিকদার।।

৫৭৫

মেডিটেশন বা ধ্যান স্বাস্থ্যসেবার পরিপূরক একটি মানসিক সেবা। আমাদের দেশে যেহেতু স্বাস্থ্যসেবা ভ্যাটের আওতামুক্ত, সেহেতু মেডিটেশন সেবাকেও ভ্যাটের আওতামুক্ত রাখা প্রয়োজন। ২০২২-২৩ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মেডিটেশনের উপর ভ্যাট অব্যাহতি প্রত্যাহার করার প্রস্তাব করলে বিশিষ্টজনেরা নানা প্রতিক্রিয়ায় এমন আহ্বান জানিয়েছেন। এর মধ্যে সংসদ সদস্য, অর্থনীতিবিদ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, কবি, চিকিৎসকসহ রয়েছেন সমাজের নানা স্তরের মানুষ।

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রহুল হক সংসদে এবারের বাজেট অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন ২০ জুন। মেডিটেশনে ভ্যাট প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, মেডিটেশনে ট্যাক্স দেয়া হয়েছে। সেটা কমিয়ে গতবারের মতো জিরো করার জন্য আমি আহ্বান জানাই।

১৯ জুন ঢাকা-৮ আসনের রাশেদ খান মেনন, এমপি তার বাজেট বক্তৃতায় প্রশ্ন রেখে বলেন, মেডিটেশনকে মানসিক স্বাস্থ্য বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজন বিধায় একে করের বাইরে রাখা প্রয়োজন। কোভিড প্রতিক্রিয়ায় মানুষের মন যখন বিপর্যস্ত সেখানে মেডিটেশনের আশ্রয় নিলে তাকে বেশি মূল্য দিতে হবে। কেন মাননীয় স্পিকার?

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ড. আবদুল মজিদ বলেন, যেখান থেকে মানুষের সেবা শুশ্রূষা বা সুস্থতার একটা পদ্ধতি করা হয় মেডিটেশন হচ্ছে সেরকম একটা মাধ্যম বা পথ। এর উপর সাধারণত কোনো ভ্যাট বা ট্যাক্স হওয়ার কথা না। অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভলি এবং যৌক্তিকভাবে এটা রিভিউ করা দরকার।

মেডিটেশন নিয়ে সারা পৃথিবীতে অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা হয়েছে। গবেষকরাও বলছেন, নিয়মিত মেডিটেশনের কথা। শারীরিক-মানসিক সুস্বাস্থ্য অর্জনসহ সবদিক থেকে ভালো থাকার এই চর্চা মেডিটেশন বা ধ্যানের উপর কর না নিয়ে এটিকে চিকিৎসা সহায়ক হিসেবে স্থায়ীভাবে ভ্যাটমুক্ত করার কথা জানান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যালিয়েটিভ মেডিসিন বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. নিজাম উদ্দিন আহমদ।

তিনি মনে করেন, নিয়মিত মেডিটেশন করলে একজন মানুষের মনোজগত ও দৃষ্টিভঙ্গিতে গভীর পরিবর্তন ঘটে। মানুষের প্রতি তার মমতা ও সমমর্মিতা বৃদ্ধি পায়।

ইউনাইটেড হাসপাতালের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. জহির উদ্দিন আহমাদ বলেন, মেডিটেশন হচ্ছে ইজ এ পার্ট অফ ট্রিটমেন্ট, পার্ট অফ রিলাক্সেশন এবং এটা শরীরের জন্য খুব প্রয়োজন এবং উপকারী। ট্রিটমেন্টের সাথে আমরা মেডিটেশন এবং মেডিকেশন, ঔষধ এবং এই যোগ ব্যায়ামটাকে আমরা একসাথে যোগ করে দেই। যাদের স্ট্রেস একটা বিরাট ফ্যাক্টর তখন তাদেরকে বলেছি ওষুধ ছাড়াও আপনারা মেডিটেশন প্র্যাকটিস করবেন। যদি ট্যাক্স ধরে অনেকে বাদ দিয়ে দেবে, বাদ দিয়ে দিলে তাদের. মানসিক ক্ষতি হবে।

বুয়েটের অধ্যাপক ড. মো. শামসুল হক বলেন, একটা সুন্দর জীবন যাপনের জন্য যে একটা প্রক্রিয়া তার উপরে যে ভ্যাটটা আরোপ করা হয়েছে এটার ফলে আমি বলব এখানে আগ্রহ যেটা আছে সেটা কমে যাবে। আখেরে কিন্তু সোসাইটির মধ্যে যে শান্তি এবং শৃঙ্খলা বজায় থাকার কথা সেটি কিন্তু আমরা অনেক সময় পারব না।

কবি অসীম সাহা জানান, মেডিটেশনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যগত উপকার হয়, চিন্তা-চেতনার বিকাশও হয়। তাই মেডিটেশনের উপর যেন কোনো ভ্যাট আরোপ করা না হয়। এটা যদি বন্ধ করা না হয় তাহলে এক্ষেত্রে যারা উদ্যোগ নিয়েছেন; শুধু তারাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে- তা নয়; ক্ষতিগ্রস্ত হবে দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষ। আমি মনে করি আমাদের বঙ্গবন্ধু কন্যা এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী, তিনি মানবিক মানুষ এবং মানবিক কাজে তার ভূমিকা সর্বত্র নন্দিত। এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীরও এবিষয়ে মনোযোগ দেয়া উচিত। এবং তিনি যদি হস্তক্ষেপ করেন তবে এ ধরনের বৈপরীত্যমূলক কাজে যে ক্ষতি হয় সে ক্ষতিটা অন্তত হবে না এবং বহু মানুষ উপকৃত হবে।

২০২০-২০২১ অর্থবছর মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছিলেন, ‘বৈশ্বিক এই দুর্যোগ কালে জনগণের মানসিক স্বাস্থ্য ও মনোবল অটুট রাখার স্বার্থে মেডিটেশন সেবার উপর মূসক অব্যাহতি বলবৎ রাখার প্রস্তাব করছি’। পরের বছরও তিনি মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য মেডিটেশন সেবার উপর ভ্যাট অব্যাহতি আরো এক বছরের জন্য বৃদ্ধির প্রস্তাব করেন।

মেডিটেশন চর্চার উপকার বিবেচনায় ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেটে মাননীয় প্রয়াত অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত মেডিটেশন সেবার উপর প্রযোজ্য মূসক প্রত্যাহারের প্রস্তাব করেছিলেন।

সব কিছু মিলিয়ে চলতি বাজেট বক্তব্যেও আলোচনায় ছিল মেডিটেশন। বাজেট বক্তৃতায় মেডিটেশনের উপর ভ্যাট প্রত্যাহারের প্রস্তাব করেন বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য। তারা বলছেন, মেডিটেশন বা ধ্যান মানসিক স্বাস্থ্য সেবা হিসেবে বিবেচিত। স্বাস্থ্য সেবা যেহেতু ভ্যাটমুক্ত, তাই মেডিটেশনের উপর থেকেও ভ্যাট প্রত্যাহার করাটা জরুরি। খুলনা-৫ আসনের নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি, বরিশাল-৪ এর সংসদ সদস্য পংকজ দেবনাথ এমপি, গাজীপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মেহের আফরোজ, ফেনী-১ আসনের শিরীন আখতারসহ আরো কয়েকজন সংসদ সদস্য তাদের বক্তব্যে মেডিটেশনের উপর থেকে ভ্যাট স্থায়ীভাবে ভ্যাট প্রত্যাহারের আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের চিকিৎসকদের জন্যে প্রকাশিত উচ্চ রক্তচাপ চিকিৎসার গাইডলাইনে যৌথভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন জীবনধারা পরিবর্তনের পাশাপাশি মেডিটেশন, যোগব্যায়াম ও প্রাণায়াম চর্চার কথা বলা হয়েছে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!