ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় নির্বাচনী সভায় হামলায় ১০ জন আহত

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি।।

১৬৪

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় বালিগাও ইউনিয়নে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থীর জনসভায় আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। রোববার (২৪ অক্টোবর) রাত আনুমানিক ১১টার দিকে উপজেলার বালিগাও বাজারে এ ঘটনা ঘটেছে।

আহতদের মধ্যে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী ও বালিগাও ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শামসুল হক, সাবেক চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আ. কাদিরও রয়েছেন।
স্থানীয়রা জানায়, বালিগাও বাজারে আ’লীগের প্রার্থী ও বালিগাও ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শামসুল হকের নির্বাচনী জনসভা চলছিল। হঠাৎ বিদ্রোহী প্রার্থী হারুন অর রশিদের সমর্থকরা হামলা ভাংচুর শুরু করে। এ সময় আ’লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। পরে আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

তবে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করে আ’লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন অর রশিদ বলেন, তিনি এই হামলার সাথে জড়িত নন। তার নাম ব্যবহার করে অপর কোন পক্ষ এই হামলা চালাতে পারে।

এ বিষয়ে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী শামসুল হক বাদী হয়ে ৫১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আসামি করে ধোবাউড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি অভিযোগ করেন আ’লীগের বিদ্রোহী প্রর্থী হারুন অর রশিদের লোকজন নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনে ও নির্বাচনের পরিবেশ অশান্ত করতে তার জনসভায় হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে লোকজনকে আহত করেছে।

ধোবাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, এ ঘটনায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শামছুল হক বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। এখন তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। বর্তমানে নির্বাচনি এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

সাইফ/ অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!