রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মালা শহীদ মিনারে নেই, শহীদ মিনার অপরিচ্ছন্ন

নীলফামারী প্রতিনিধি।।

১৬১

রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদ মিনারে মালা দিয়েছিলাম, ২১ ফেব্রুয়ারি জানতে পারলাম মালা নেই, অপরিচ্ছন্ন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার। এ কথা গুলু বলেছেন রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অহেদুল ইসলাম।

স্থানীয় দের অভিযোগ বিদ্যালয়ের পক্ষে ভাষা শহীদ দের শ্রদ্ধা জানায়নি বিদ্যালয় কতৃপক্ষ এমন কি শহীদ মিনার টি পরিস্কার পর্যন্ত করেনি। এবিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিরুদ্ধে উঠেছে। নিন্দার ঝড়

সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ময়লা আবর্জনার মধ্যে ইটের খোয়ায় অরক্ষিত শহীদ মিনারের বেদিতে কোনো ফুল নেই। দেখানো হয়নি ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধা।পরে স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেনের পক্ষ থেকে পুষ্প মাল্য অর্পণ করা হয়। তার পরেই নজরে অসে বিষয় টি স্থানীয়দের, পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ বিষয় টি ভাইরাল হয় কমেন্টে উঠে আসে নিন্দা ও অব্যবস্থা পনার বিষয়।

রামনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাবু জানান, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করার কথা থাকলেও কেনো ওই প্রতিষ্ঠান করে নাই এ বিষয়ে আমি তাদের সাথে কথা বলবো।

রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অহেদুল ইসলাম বলেন রাত ১২টা ১ মিনিটে শহিদ মিনারে মালা দিয়েছিলাম, ২১ ফেব্রুয়ারি জানতে পারলাম মালা নেই, অপরিচ্ছন্ন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মুক্তার হোসেনকে অনেক বার বলেছি খোয়া গুল শহীদ মিনার থেকে সরাতে কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি কোন কথা শুনেনি। ছোট বাচ্চারা ফুল ও মালা নিতে এসে খোয়ার মধ্যে লাফা লাফি করায় এ অবস্থা হয়েছে।

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: শফিকুল ইসলাম বলেন,বিষয়টি জানতে পেরেছি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসূচি পালন করার নির্দেশ দিয়েছিলাম।কিন্তু ওই প্রতিষ্ঠান কেন পালন করেননাই,তাই সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!