সোনাগাজীতে গাছ লুটের ঘটনায় প্রতিপক্ষ ও ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা

জাবেদ হোসাইন মামুন, সোনাগাজী (ফেনী)

১১৩

ফেনীর সোনাগাজীর সাতবাড়িয়া গ্রামের মুয়াদার বাড়িতে গাছ লুটের ঘটনায় প্রতিপক্ষ ও ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ৫ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার রাতে নূরুল হাসান জাহেদ বাদি হয়ে চারজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২-৩জনকে আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার আসামিরা হলেন, মাহমুদুল হকের ছেলে একরামুল হক বাহার (৪২), মো. সুমন (৩৫), মৃত বাদশা মিয়ার ছেলে বেলায়েত হোসেন (৫০), ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে মোজাম্মেল রহমান প্রকাশ লিটন (৪০) এবং অজ্ঞাতনামা ২-৩জন।

সোনাগাজী মডেল থানার মামলা নং-০৪, তাং-০৫-০১-২০২৩ খ্রিস্টাব্দ।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার, পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নূরুল হাসান জাহেদ গংদের সঙ্গে একই বাড়ির একরামুল হক বাহার গংদের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত ৩ জানুয়ারি প্রকাশ্য দিবালোকে একরামুল হক বাহারের নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে একদল ভাড়াটে সন্ত্রাসী এনে নূরুল হাসান জাহেদ গংদের মালিকীয় দখলীয় জমি থেকে চারটি বড়বড় কড়ই গাছ লুটে নেয়। যার আনুমালিক ১ লাখ টাকা। এছাড়া প্রায় ২০ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতির গাছপালা নষ্ট করে। বাদি বাধা দিতে এগিয়ে গেলে আসামিরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাদিকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধাওয়া করে। বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে বাদি সহ তার পরিবারের সদস্যদের খুন করে লাশ গুম করার হুমকি দিয়ে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন। বাদি সহ তার স্বজনরা খরিদ সূত্রে মালিক হিসেবে দীর্ঘ দিন সংশ্লিষ্ট জমি গাছ সহ ভোগ দখলে রয়েছেন। কিস্তু হঠাৎ করে গায়ের জোরে আসামিরা গাছগুলো লুট করে।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ খালেদ হোসেন দাইয়্যান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!