হিলিতে দুদিন ধরে ফিলিং স্টেশনে মিলছেনা পেট্রোল বিপাকে পড়েছেন মোটরসাইকেল চালকরা

হিলি প্রতিনিধি।।

১৩২

তেলের মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় দিনাজপুরের হিলিতে গতদুদিন ধরে ফিলিং স্টেশনে মিলছেনা পেট্রোল তেল। এতে করে বিপাকে পড়েছেন মোটরসাইকেল চালকসহ অন্যান্য যানবাহন মালিকরা। চাহীদামত পেট্রোল না পাওয়ায় এই সংকট বলে জানিয়েছে ফিলিং স্টেশন কতৃপক্ষ।

হিলির একমাত্র ফিলিং স্টেশনটি উপজেলার সাদুড়িয়ায় অবস্থিত মেসার্স হিলি ফিলিং স্টেশন। বুধবার বিকেলে সরেজমিন ফিলিং স্টেশনে গিয়ে দেখা যায় অনেক মোটরসাইকেল চালক তাদের বাইকের জ্বালানি পেট্রোল নিতে গিয়ে পেট্রোল না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন। আবার কেউ কেউ পেট্রোলের পরিবর্তে অকটেন নিয়ে চাহীদা মেটাচ্ছেন একইভাবে অন্যান্য যানবাহন মালিকরা অকটেন দিয়ে চাহীদা মেটাচ্ছেন।

ফিলিং স্টেশনে তেল নিতে আসা মোটরসাইকেল চালক সুজন হোসেন বলেন, আমি ধানের ব্যবসা করি সেকারনে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ধান কেনার জন্য মোটরসাইকেল নিয়ে আমাকে চলাচল করতে হয়। কিন্তু বিরামপুরে যাওয়ার জন্য গতকাল সকালে ফিলিং স্টেশনে গিয়ে গাড়ির জ্বালানি পেট্রোল পাইনি। আজ এসেছি তেল নিতে আজকেও নেই যার কারনে দুদিন থেকে পেট্রোল তেল পাচ্ছিনা তাই বাধ্য হয়ে অকটেন ব্যবহার করছি। কিন্তু এতে করে বাড়তি টাকা গুনতে হচ্ছে তেমনি মোটরসাইকেলের সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

তেল নিতে আসা ইসমাইল হোসেন বলেন, আমাদের হিলিতে একটি মাত্র ফিলিং স্টেশন যেখান থেকে তেল ক্রয় করে মোটরসাইকেল চালানো হয়। কিন্তু সেখানেও গতদুদিন ধরে পেট্রোল তেল পাওয়া যাচ্ছেনা তেল নিতে গিয়ে আমাদের ফিরে আসতে হচ্ছে। এতে করে আমাদের বাইক চালাতে যেমন সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তেমনি বিভিন্ন কাজে বাহিরে যাওয়া বিঘিœত হচ্ছে। অনেক সময় বাধ্য হয়ে বাড়তি দামে অকটেন নিয়ে চালাতে হচ্ছে।

মেসার্স হিলি ফিলিং স্টেশনের ম্যানেজার গোলাম রব্বানি বলেন, মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় গতদুদিন ধরে আমাদের ফিলিং স্টেশনে পেট্রোল তেল নেই তবে অকটেন ডিজেল তেলের সরবরাহ রয়েছে। এর কারন হলো আমাদের ফিলিং স্টেশনে মাসে পেট্রোলের চাহীদা ২০ হাজার লিটার কিন্তু এর বিপরীতে দেওয়া হচ্ছে কোন মাসে ১৩ হাজার আবার কোন মাসে ১৮ হাজার যার কারনে আমাদের যে তেলের চাহীদা সেই চাহীদা মোতাবেক আমরা তেল পাচ্ছিনা। এর কারনেই ফিলিং স্টেশনে তেল বিক্রিতে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। আমরা সাধারনত বাঘাবাড়ি ও পার্বতীপুর ডিপো থেকে তেল নিয়ে আসি কিন্তু গত সোমবার তেল দেওয়ার কথা ছিল সেদিন ডিপো থেকে তেল দেয়নি যার কারনে এই সংকট তৈরি হয়েছে। আমরা আজ আবারো পার্বতীপুরে এসেছি তেল নিতে আজকে ডিপো থেকে তেল দিতে চেয়েছে রাতে তেল লোড হবে সেক্ষেত্রে আগামীকাল থেকে ফিলিং স্টেশনে আবারো পেট্রোল তেল বিক্রি শুরু হবে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!