হিলিতে ৫বছরের এক শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগে আটক

সালাহউদ্দিন বকুল, হিলি প্রতিনিধি।।

৩৫২

দিনাজপুরের হিলিতে খেলার প্রলোভন দেখিয়ে ৫বছরের এক শিশুকে ডেকে পানের বরজে নিয়ে গিয়ে ১৬বছরের এক কিশোর কতৃক ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে। শিশুটির অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। এদিকে অভিযুক্ত রেজোয়ান হক ওরফে সুমনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার বিকেলে হিলির খট্টামাধবপাড়া ইউনিয়নের ঘনশ্যামপুর এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে। আটক রেজোয়ান ওই এলাকার রেজাউলের ছেলে, সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ছাত্র। এদিকে অভিযুক্তের উপযুক্ত শাস্তির দাবী করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

শিশুটির বাবা জানান, দুপুরে বাপ বেটি একসাথে গোসল করে বাড়িতে একসাথে বসে খাওয়া দাওয়া করে আমি আমার কাজে মাঠে চলে যাই, আর মেয়ে বাড়িতে বসে খেলছিল। বিকেলে খেলার প্রলোভন দেখিয়ে আমার বাড়ির পার্শ্ববর্তী রেজোয়ান মেয়েকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পার্শ্বে পানের বরজে নিয়ে গিয়ে খেলার ছলে তাকে ধর্ষন করে। পরে রক্তার্ত অবস্থায় মেয়ে বাড়ি ফিরে আসলে রেজোয়ান খেলার কথা বলে ডেকে নিয়ে গিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে। এসময় আমার মেয়ের শরীর থেকে রক্ত পড়তে লাগলে সাথে সাথে তাকে উদ্ধার করে হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে ভর্তি করি।

স্থানীয় এলাকাবাসী রতন বলেন, আমাদের খট্টামাধবপাড়া ইউনিয়নে এধরনের কোন ঘটনা এর আগে ঘটেনি। আজকে যে ছোট্ট শিশুটির প্রতি এমন অমানবিক ঘটনা ঘটেছে এর জন্য আমরা অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চাই। যাতে এমন শাস্তি হয় যেন পরবর্তীতে এই ধরনের ঘটনা ঘটানোর আর সাহস না পায়।

হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা.হুমায়ন কবির বলেন, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে একটি শিশুকে আমাদের হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।এসময় শিশুটির যৌনাঙ্গ দিয়ে রক্তক্ষরন হচ্ছিল। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে শিশুটিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ও এটি ধর্ষন কিনা তা পরিক্ষা নীরিক্ষা করার জন্য দিনাজপুর এমরহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেছি।

হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি,তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, উপজেলার খট্টামাধবপাড়া গ্রামের সানোয়ার হোসেন নামের এক ব্যাক্তি অভিযোগ করেন যে তার ৫/৬বছরের এক শিশুকে প্রতিবেশী রেজোয়ান ধর্ষন করে। শিশু ধর্ষনের এমন মৌখিক অভিযোগ পেয়ে আমরা সাথে সাথেই অভিযান চালিয়ে ধর্ষনকারীকে আটক করতে সক্ষম হয়। বর্তমানে সে আমাদের থানা হাজতে রয়েছে, এবিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ভিকটিম প্রাথমিক পর্যায়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ছিলেন, পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার দিনাজপুর মেডিকেলে পাঠিয়েছেন।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24।।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!