হিলি স্থলবন্দরে অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে লক্ষ্যমাত্রার অধিক ২৯ কোটি টাকা রাজস্ব আহরন

সালাহউদ্দিন বকুল, হিলি প্রতিনিধি।।

১৪৯

করোনা মহামারির মাঝেও দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে (জুলাই-আগষ্ট) লক্ষ্যমাত্রার অধিক ২৮ কোটি ৯৬লাখ টাকা রাজস্ব আহরন করেছে হিলি স্থল শুল্ক স্টেশন কতৃপক্ষ। এসময়ে বন্দর থেকে রাজস্ব আহরনে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারীত ছিল ৩১ কোটি ৩১লাখ টাকা তার বিপরীতে দুমাসে আহরন হয়েছে ৬০ কোটি ২৭ লাখ টাকা। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রার অধিক রাজস্ব আহরন সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন কাস্টমস কতৃপক্ষ।

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশন কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে হিলি স্থলবন্দর থেকে ২৮৭ কোটি ৫লাখ টাকা রাজস্ব আহরনে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। সেহিসেব মোতাবেক অর্থবছরের প্রথম জুলাই মাসে বন্দর থেকে রাজস্ব আহরনে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারীত ছিল ১০ কোটি ৫লাখ টাকা এর বিপরীতে আহরন হয়েছে ৩৩ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। অর্থবছরের দ্বিতীয় মাস আগষ্ট মাসে রাজস্ব আহরনে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২১ কোটি ২৬ লাখ টাকা এর বিপরীতে মাস শেষে আহরন হয়েছে ২৬ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। এতে করে অর্থবছরের প্রথম দুই মাস (জুলাই-আগষ্ট) লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩১ কোটি ৩১লাখ টাকা আহরন হয়েছে ৬০ কোটি ২৭ লাখ টাকা এতে করে লক্ষ্যমাত্রার অধিক ২৮ কোটি ৯৬লাখ টাকা বাড়তি রাজস্ব আহরন সম্ভব হয়েছে।

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা এসএম নুরুল আলম খান বলেন, আমাদের কাস্টমসের সেবা বাড়ানো, বন্দর দিয়ে আমদানিকৃত পণ্যের দ্রুত পরিক্ষন শুল্কায়ন কার্যক্রম সম্পুর্ন করার কারনে বন্দর দিয়ে আমদানিকৃত পণ্য একই দিনে এসে বন্দরের সকল কার্যক্রম সম্পুর্ন করে দিনেই খালাস নিতে পারছেন আমদানিকারকরা। এতে করে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পণ্য আমদানিতে সময় যেমন কম লাগছে তেমনি আমদানিকারকরা সহজেই আমদানিকৃত পণ্যগুলো বাজারজাত করতে পারছেন যার কারনে এই বন্দর দিয়ে আমদানি বাড়িয়েছেন আমদানিকারকরা। মুলত বন্দর দিয়ে আগের তুলনায় আমদানি রফতানি বাড়ার কারনেই রাজস্ব আহরন বেড়েছে। বন্দর দিয়ে প্রচুর পরিমানে পাথর, গম, ভুটা, পেয়াজ, ভুষি, চিটাগুড়সহ বিভিন্ন পণ্য নিয়মিতভাবে আমদানি হচ্ছে। এছাড়া বন্দর দিয়ে সম্প্রতি চাল আমদানি শুরু হয়েছে তাতে করে সামনের দিনে রাজস্ব আহরন কিছুটা বাড়বে। এছাড়া এখন তো লকডাউন নেই, করোনার কারনে আমদানি রফতানি বানিজ্য কমে গিয়েছিল এখন করোনা পরিস্থিতি অনেকটা ভালো সেহেতু বন্দর দিয়ে আমদানি রফতানি আরো বাড়বে এতে করে বন্দরের রাজস্ব আহরন আরো বাড়বে বলে আশা করছি।গতঅর্থবছরেও বন্দর থেকে লক্ষ্যমাত্রার অধিক রাজস্ব আহরন সম্ভব হয়েছিল তাতে করে চলতি অর্থবছরেও লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে রাজস্ব আহরন সম্ভব হবে।

আহসানুজ্জামান সোহেল/অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!