হিলি স্থলবন্দর দিয়ে একদিনে রেকর্ড সংখ্যক ৩ হাজার ৭৬৩ টন চাল আমদানি

হিলি প্রতিনিধি।।

১৭৯

প্রথম পর্যায়ে অনুমোদনপ্রাপ্ত চাল আমদানিকারকদের ভারত থেকে চাল আমদানির শেষ দিনে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে “৩ হাজার টন চাল” আমদানি হয়েছে। এদিকে বিপুল সংখ্যক চাল আমদানির ফলে দেশে চালের বাজার আরো কমবে বলে জানিয়েছেন বন্দরের আমদানিকারকরা। শনিবার বন্দর দিয়ে ভারত থেকে ৮৯টি ট্রাকে সর্বমোট ৩হাজার ৭৬৩টন চাল আমদানি হয়েছে। যেখানে বৃহস্পতিবার বন্দর দিয়ে ২৮টি ট্রাকে ১ হাজার ১৯১টন চাল আমদানি হয়েছিল।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি রফতানিকারক গ্রুপের সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বোরোর ভরা মৌসুমে চালের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে উঠলে বিপাকে পড়েন নিন্ম আয়ের মানুষজন। চালের মুল্য সহনশীল রাখতে চালের আমদানি শুল্ক ৬২.৫ ভাগ থেকে কমিয়ে ২৬ভাগ নির্ধারন, বেসরকারী পর্যায়ে কয়েক লাখটন চাল আমদানির অনুমতি দেয় সরকার। যার মধ্যে হিলির ১৮জন আমদানিকারক ৬৮হাজার টন চাল আমদানির অনুমতি পায়। এতে করে দীর্ঘ প্রায় ৪মাস বন্ধের পর হিলি স্থলবন্দর দিয়ে চাল আমদানি শুরু হয়।

প্রথমের দিকে আমদানি কিছুটা কম হলেও ধীরে ধীরে বন্দর দিয়ে চালের আমদানি বাড়ায় দেশের বাজারে চালের দাম কমতে শুরু করে। এতে করে গতবেশ কয়েকদিন ধরে চালের বাজার অনেকটা স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে। তবে বেসরকারী পর্যায়ে ভারত থেকে চাল আমদানির জন্য প্রথম পর্যায়ের দিকে সরকারি অনুমোদন প্রাপ্ত আমদানিকারকদের চাল আমদানির জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সর্বশেষ সময়সীমা নির্ধারনের দিন ছিল ২৫সেপ্টেম্বর। সে মোতাবেক আজ শনিবার যাদের চালের কনসার্নমেন্ট শেষ দিন ছিল শুধুমাত্র তাদের চালের ট্রাকগুলোকে কমিয়ে ভারত থেকে রফতানি করা হয়েছে।

এসময় অন্য পণ্য রফতানি কিছুটা কমিয়ে দিয়ে এই চালগুলো রফতানি করা হয়েছে। যার কারনে আজ বন্দর দিয়ে রেকর্ড সংখ্যক চাল দেশে প্রবেশ করেছে। এতো পরিমানে চাল আমদানির ফলে দেশের বাজারে চালের বাজারে বিদ্যমান দামের উপর প্রভাব পড়বে দাম কিছুটা কমতে পারে। তবে পরে যারা চাল আমদানির অনুমতি পেয়েছেন তাদের এখনো ১৪ অক্টেবর পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারীত আছে সে কারনে তারা এখনো বন্দর দিয়ে চাল আমদানি করতে পারবেন।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, বন্দর দিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই পুর্বের তুলনায় চালের আমদানি খানিকটা বেড়েছে। প্রথমের দিকে বন্দর দিয়ে ৫ থেকে ১০ট্রাক চাল আমদানি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে ২৫ থেকে ৩০ট্রাকে দাড়িয়েছিল। তবে বন্দর দিয়ে চাল আমদানি শুরুর পর থেকে শনিবার সর্বচ্চো সংখ্যক চাল আমদানি হয়েছে। বন্দর দিয়ে ৮৯টি ট্রাকে সর্বমোট ৩হাজার ৭৬৩টন চাল আমদানি হয়েছে।

সাইফুল সুমন/অননিউজ24

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!