ইউক্রেনে আরও একটি গণকবরের সন্ধান

অনলাইন ডেস্ক।।

২১৫

ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সম্প্রতি পূর্বাঞ্চলীয় লিম্যান শহরে আরও একটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। তবে ওই গণকবর থেকে কতজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে সে বিষয়টি নিশ্চিত নয়। আঞ্চলিক গভর্নর প্যাভলো কিরিলেনকো এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর আল জাজিরার।

শুক্রবার পূর্বাঞ্চলীয় দোনেৎস্ক প্রদেশের গভর্নর কিরিলেনকো এক টেলিগ্রাম পোস্টে জানিয়েছেন, লিম্যানের কর্মকর্তারা একটি গণকবরের সন্ধান পেয়েছেন। স্থানীয় কর্মকর্তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওই গণকবরে সেনা সদস্য এবং বেসামরিকদের মরদেহ থাকতে পারে। তবে মরদেহের সঠিক সংখ্যা সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

তবে পৃথক একটি প্রতিবেদনে ইউক্রিনফর্ম নিউজ এজেন্সি এক পুলিশ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ওই গণকবর থেকে ১৮০টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কিয়েভ পোস্টও এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে যে, লিম্যান শহরে একটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। সেখানে ১৮০টি মরদেহ উদ্ধারের কথা জানানো হয়েছে। এর মধ্যে অল্প বয়সী শিশুদের মরদেহও রয়েছে।

গত সপ্তাহে দনেৎস্ক প্রদেশের লিম্যান শহরটি রাশিয়ার কাছ থেকে পুনরুদ্ধারের দাবি করেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। অধিকৃত অঞ্চলে নৃশংসতার জন্য ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষ বার বার রুশ সৈন্যদের অভিযুক্ত করে আসছে। যদিও এ ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে মস্কো।

গত মাসের শেষের দিকেই আরও দুটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া যায়। দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ইজিয়াম শহরে শনাক্ত হওয়া ওই দুই গণকবরে শত শত মানুষকে মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে বলে করে ইউক্রেন।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত সংঘর্ষ চলছেই। এরই মধ্যে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে বেশ কয়েকটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। রুশ সেনারা সেখানে শত শত মানুষকে মাটি চাপা দিয়ে রেখেছে বলে ইউক্রেনের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

এর আগে সেপ্টেম্বরের শুরুতেই ইজিয়ামে এক বিশাল গণকবরের সন্ধান মেলে। কর্তৃপক্ষ সেখানে ৪৩৬ মরদেহের সন্ধান পায়। সেখানকার আঞ্চলিক গভর্নর জানায় যে, অধিকাংশ মরদেহ দেখে মনে হচ্ছে সংঘাতের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!