নড়াইলে শ্বশুরবাড়ী থেকে একাধিক মামলার আসামীকে কুপিয়ে হত্যা

নড়াইল প্রতিনিধি

৮৮

শ্বশুরবাড়ী বেড়াতে গিয়ে দুবৃত্তদের হাতে নৃশংসভাবে খুন নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কুমড়ি গ্রামের সোহেল খা (৪০)। তার পিতার নাম বদিয়ার খান ওরফে কানা বদি।

বৃহস্প্রতিবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে দিঘলিয়া ইউনিয়নের ভাটপাড়া গ্রামে তার শ^শুরুবাড়ি থেকে দুবৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করে। নিহত সোহেলের বিরুদ্ধে ৪টি হত্যাসহ ১৩টি মামলা রয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, সোহেল খা আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার ও প্রতিপক্ষের ভয়ে দীর্ঘদিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলো। মাঝে মধ্যে সতর্কতার সাথে গোপনে এলাকায় আসা-যাওয়া করতো ।

ঘটনার সময় তিনি পাশ^বর্তী ভাটপাড়া গ্রামে তার শ^শুর হাসেন মুন্সীর বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। রাতে বিদ্যুৎ না থাকায় ঘরের বাইরে আসলে দুবৃত্তরা সোহেলকে ঘিরে বেপরোয়াভাবে কুপিয়ে মৃুত্যু নিশ্চিত করে চলে যান। নিহতের বুক, চোখ সহ শরীরের একাধিক স্থানে কোপের চিহ্ন রয়েছে।
নিহত সোহেল খা দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক শ্রম বিষয়ক সম্পাদক লতিফুর রহমান পলাশ, দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ জহিরুল ইসলাম রেজওয়ান, যুবদল নেতা তনুসহ ৪টি হত্যা মামলা এবং মারামারিসহ ১৩টি মামলার আসামী ছিলেন। এছাড়া পুলিশের একজন তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী ছিলেন।

লোহাগড়া থানার ওসি আবু হেনা মিলন বলেন, ‘ খবর শোনার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে লোহাগড়া থানায় নিয়ে আসা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খুনের সাথে জড়িতদের আটকের জোর চেষ্টা চলছে।’

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!