বিরল প্রজাতির সাপ ঘিরে চাঞ্চল্য

অনলাইন ডেস্ক।।

১২৮

রহস্যময় সাপ, গায়ে বড় বড় লোম। বিরল প্রজাতির এমনই এক সাপকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে থাইল্যান্ডের সোয়াম্প এলাকায়।

উত্তরপূর্ব থাইল্যান্ডের সাখোন নাখোন প্রদেশের স্থানীয় বাসিন্দা তু’র চোখেই প্রথম পড়েছিল এই সাপটি। সে দেশের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমেও উঠে আসে এমন বিরল সাপ উদ্ধারের বিষয়টি। ৪৯ বছর বয়সী তু রাতে কাজ থেকে ফেরার পথে ওই সাপটিকে দেখতে পান।

এরপর একটি জারের মধ্যে সেটিকে তুলে বাড়িতে নিয়ে যান তিনি। পরিবারের লোকেরাও সেটি দেখে অবাক হয়ে যান। বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পর দেখা যায় সাপটি প্রায় দু’ফুট লম্বা, যার গায়ে সবুজ লোম রয়েছে।

পানি দিয়ে জারটি ভরে সাপটিকে মাছ খেতে দেয় তু এর পরিবার। পরিবারের লোকদের দাবি, ‘এমন সাপ এর আগে কখনও এই এলাকায় দেখা যায়নি। আমাদের মনে হয়েছে এটিকে সংরক্ষণ করলে মানুষের গবেষণার কাজে লাগতে পারে, তাই সাপটিকে রেখে দিয়েছি।’

এদিকে এমন বিরল প্রজাতির সাপের ভিডিও প্রকাশ করে মানুষের কাছে সাহায্যের আবেদন করে তু এর পরিবার। এ বিষয়ে তু জানিয়েছেন, সাপটির গায়ের ওপর কেরাটিন জাতীয় পদার্থের খোলস রয়েছে।

সাপটি সেটিকে মাঝে মাঝে খোলস ত্যাগের মতো করে ঝরিয়েও দেয়। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতেই সাধারণত এমন সাপ দেখা যায়। তবে গায়ে এমন লোমযুক্ত সাপ দেখা যায়নি। সাপটি বিষধর বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছেন উদ্ধারকারীরা।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!