ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় বাদৈর সম্প্রীতি ফোরামের ব্যতিক্রমী আয়োজন

জাহাঙ্গীর আলম ইমরুল, কুমিল্লা।।

৭০

ব্যতিক্রমী আয়োজনের মধ্য দিয়ে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার বাদৈর গ্রামের ‘বাদৈর সম্প্রীতি ফোরাম’। অনুষ্ঠানে ব্যতিক্রমী আয়োজনের মধ্যে ছিলো- ৬টি অসহায় পরিবারের কর্মসৃজনের ব্যবস্থা করা, মেডিক্যালে চান্সপ্রাপ্ত ৪ জনকে সংবর্ধনা প্রদান ৩০ জন নতুন সরকারি চাকুরিপ্রাপ্তদের সংবর্ধনা প্রদান এবং নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সংবর্ধনা প্রদান।

৪মে বুধবার সকালে বাদৈর সাবের সাদত পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে ‘বাদৈর সম্প্রীতি ফোরাম’ আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের উপসচিব ও কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. সফিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ‘বাদৈর সম্প্রীতি ফোরাম’ এর আহবায়ক ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের সহকারি অধ্যাপক সামসুল হক বাবুল।

ফোরামের অন্যতম সমন্বয়ক পানিয়ারুপ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আমিনুল ইসলামের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ওয়াসার নির্বাহী প্রকৌশলী সেলিম মিঞা, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারি শিক্ষা অফিসার মনির হোসেন, বাদৈর স্কুলের শিক্ষক ও কসবা উপজেলা স্কাউটের সম্পাদক নজরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, নিবড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক, বাদৈর সাবের সাদত উচ্চবিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ৩০ জন নতুন সরকারি চাকুরিপ্রাপ্তগণ ও মেডিক্যালে চান্সপ্রাপ্ত সকল শিক্ষার্থীর হাতে ক্রেস্ট তুলে দিয়ে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

৬টি অসহায় পরিবারের কর্মসৃজনের উদ্দেশ্যে প্রতিটি পরিবারের হাতে ২০-৩০ হাজার টাকার চেক অনুদান হিসেবে তুলে দেওয়া হয়।

ফোরামের আহবায়ক জনাব সামসুল হক বাবুল জানান, ‘‘প্রতিষ্ঠার পর থেকে ‘বাদৈর সম্প্রীতি ফোরাম’ এ পর্যন্ত ৬ লক্ষাধিক টাকার অনুদান প্রদান করেছে। গ্রামের বিভিন্ন অসহায় পরিবার, ব্যাক্তি এবং গরীব ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের এসব অনুদান প্রদান করা হয়।‘‘

অনুষ্ঠানে ঢাকা ওয়াসার নির্বাহী প্রকৌশলী জনাব সেলিম মিঞা বলেন, ‘‘ আমি সম্প্রীতি ফোরামের কর্মকান্ড অত্যন্ত প্রশংসনীয়। আমাদের সকলের উচিৎ এ সংগঠনের পাশে থাকা। এখানে উপস্থিত হওয়া ও সংগঠনের কার্যক্রমকে গতিশীল করা আমাদের দায়িত্ব।‘‘

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা উপসচিব ড. সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘‘সম্প্রতি ফোরাম কয়েকটি মহত উদ্দেশ্য নিয়ে গঠিত হয়েছে। ইতোমধ্যে এ সংগঠন সফলতার স্বাক্ষর রেখেছে। সদস্যগণও সম্পূর্ণ স্বচ্ছতার সাথে তা পরিচালনা করছেন। যতক্ষণ পর্যন্ত সম্প্রীতি ফোরাম এরকম মহত উদ্দেশ্য নিয়ে এ ফোরামের কাজ করবে, ততক্ষণ গ্রামের প্রতিটি মানুষ এ সংগঠনের পাশে থাকবেন। গ্রামের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন, শিক্ষার মান উন্নয়ন ও অন্যান্য উন্নয়ন নিয়ে সম্প্রীতি ফোরাম ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি গ্রামের বিভিন্ন অসহায় পরিবার, ব্যাক্তি এবং গরীব ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের এসব অনুদান প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। দলমত নির্বিশেষে এ সংগঠনের জন্য ভূমিকা রাখার আহবান জানান তিনি।”

এসময় বাদৈর গ্রামের প্রবীন ব্যক্তিত্ব শহীদুল হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুস সেন্টু, বিশিষ্ট চাকুরিজীবি লুকমান হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন, বাদৈর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আল মামুন খন্দকার ও বাদৈর আইডিয়াল স্কুলের পরিচালক রোমেল আহমেদসহ গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!