ভারতের ভ্রমণ ভিসা চালু হলেও অনুমতি পায়নি বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর, বিপাকে পর্যটকরা

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড়।।

৯৩

করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দুই বছর বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশ- ভারতের যৌথ সিদ্ধান্তে ভ্রমণ ভিসা চালু হয়েছে। এরই মধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থল বন্দর দিয়ে ভ্রমণ ভিসায় যাত্রী পারাপার শুরু হলেও পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে ভ্রমণ ভিসায় যাত্রী পারাপারের অনুমতি পায়নি এখনো। এতে করে বিপাকে পড়েছে ভ্রমণ ভিসায় ভারতের ভ্রমণকারী পর্যটকরা। তবে এ বন্দর দিয়ে মেডিকেল ও ব্যবসায়িক ভিসা চালু রয়েছে জানা গেছে।

জানা যায়, বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে প্রতিবছর হাজার হাজার পর্যটক ও ভ্রমণ পিপাসুরা ভারতে যাতায়াত করেন৷ শুধু বেড়াতেই নন উত্তর বঙ্গের অনেক মানুষের আত্মীয় স্বজনের বসবাস ভারতের শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়িসহ ভারতের আশপাশের জেলায়। ভারতের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান শিলিগুড়ি, সিকিম, গ্যাংকটক, দার্জিলিং, নেপাল ও ভূটান এ স্থলবন্দর থেকে কাছাকাছি হওয়ায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে পর্যটকদের কাছে এ স্থলবন্দরটি। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে ২ বছর আগে বন্ধ হয়ে যায় ভারত- বাংলাদেশ দুই দেশের মানুষদের মধ্যে যাতায়াত৷ পরবর্তীতে প্রাথমিক ভাবে মেডিকেল ও ব্যাবসায়িক ভিসা সরকার চালু করলেও বন্ধ থাকে ভ্রমণ ভিসা। ফলে করোনাকালে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর গত ১৫ নভেম্বর থেকে ভাতের ভ্রমণ ভিসা চালু করা হয়। তবে সেটা ছিল শুধু মাত্র আকাশ পথে। দুই বছর বন্ধ থাকার পর গত ৩০ মার্চ থেকে বেনাপোল ও আখাউড়া স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন দিয়ে ভ্রমণ ভিসার অনুমতি দিয়েছে সরকার। তবে অনুমতি কিংবা ভ্রমণ ভিসার সিদ্ধান্ত মিলেনি একমাত্র চতুদেশীয় এ স্থলবন্দর পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে৷ ফলে চরম বিপাকে পড়েছে গোটা উত্তর বঙের মানুষসহ ভ্রমণ ভিসাধারীরা৷ অনেকের শেষ হয়ে যাচ্ছে পাসপোর্টের মেয়াদও৷

বুধবার (৬ এপ্রিল) রাতে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, ইমিগ্রেশন) নজরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, করোনার কারণে দুই বছর ধরে বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশনসহ সব ইমিগ্রেশনে ভ্রমণ ভিসা বন্ধ ছিল৷ সরকার আবার ভ্রমণ ভিসা চালু করলেও বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন দিয়ে ভ্রমণ ভিসায় যাত্রী পারাপার বিষয়ে আমরা এখনও কোন সিদ্ধান্ত কিংবা নির্দেশনা পাইনি। যদি সরকার বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন দিয়ে ভ্রমণ ভিসা চালু করে তাহলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করবো।

তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহাগ চন্দ্র সাহা বলেন, ভ্রমণ ভিসা চালু না হলেও বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমদানী রপ্তানির পাশাপাশি ইমিগ্রেশন দিয়ে মেডিকেল ও ব্যাবসায়িক ভিসা চালু রয়েছে এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে কার্যক্রম চলছে।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!