শোকের সাগরে ভাসিয়ে চলে গেলেন তরুণ সাংবাদিক নাজমুল সবুজ

নিজস্ব প্রতিবেদক।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের দশম ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থী তরুণ সাংবাদিক নাজমুল সবুজ (২৫) মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১ টায় মারা গেছেন। তিনি করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর দীর্ঘদিন ফুসফুসের সমস্যায় ভোগেন। সবুজ দীর্ঘদিন কুমিল্লা বিশ^দ্যিালয়ে সাংবাদিকতা করেছেন।

নাজমুল স্বপরিবারে কুমিল্লার সেনানিবাসের পাশে ফরিজপুরে বসবাস করতেন। তার বাবার নাম আনোয়ার হোসেন। দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে নাজমুল সবার ছোট ছিলো।

নাজমুলের বাবা আনোয়ার হোসেন বলেন, সবুজ করোনা আক্রান্ত হওয়ার তার ফুসফুসে সমস্যা দেখা দেয়। এদেশে অনেক চিকিৎসা করিয়েছি। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত দু’সপ্তাহ আগে তাকে ভারতে পাঠাই। সেখান থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশে আসে সবুজ। আমার এক আত্মীয় বাসায় উঠে। ভাত খেয়ে ঘুমাতে গেলে রাত সাড়ে ১১ টায় বমি শুরু করে। তার কিছুক্ষণ পরেই সবুজ মারা যায় বলে হাউমাউ করে কেঁদে উঠেন সন্তান হারা আনোয়ার হোসেন।

বুধবার সকাল ১০ টায় ফরিজপুরে নাজমুল সবুজের প্রথম জানাযার নামাজ শেষে বেলা সাড়ে ১১ টায় দ্বিতীয় জানাযার নামাজ কুমিল্লা বিশ^বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত। সেখানে কর্মরত সাংবাদিকরা নাজমুল সবুজের মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। চোখের জলে সহকর্মীরা বিদায় জানান।

পরে বেলা দেড়টায় নাজমুল সবুজের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা বরুড়া উপজেলার আড্ডা গ্রামে দেড়টায় তৃতীয় জানাযার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

আরো দেখুনঃ
error: Content is protected !!